এমপিওভুক্তির দাবি:

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চান শিক্ষকরা

এমপিওভুক্তির দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চান জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান নিয়ে থাকা নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও কর্মচারীরা।

শুক্রবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে চলছে এমপিওভুক্তির দাবিতে শিক্ষক ও কর্মচারীদের তৃতীয় দিনের মতো অবস্থান কর্মসূচি। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শিক্ষক-কর্মচারীরা গত বুধবার থেকে প্রেসক্লাবের সামনে এই অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন।

নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, আমাদের একটাই দাবি, সব স্বীকৃতিপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানকে একযোগে এমপিওভুক্ত করতে হবে। যদি এ ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক সমস্যা হয় তাহলে তিন ধাপে করতে পারে সরকার। তবুও যেন আমাদের এমপিওভুক্ত করে।

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের কেউ এখন পর্যন্ত যোগাযোগ করেননি জানিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষকদের এই নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ না পাওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন কর্মসূচি প্রত্যাহার করবেন না।

তিনি আরো বলেন, এর আগে সরকার আমাদের আশ্বাস দিয়ে বলেছিল, চলতি অর্থবছর (২০১৮-১৯) থেকে এমপিওভুক্তির কার্যক্রম শুরু হবে। কিন্তু অনেক সময় অতিবাহিত হলেও কোনো সিদ্ধান্ত আসেনি। আন্দোলনের একপর্যায়ে ২০১৮ সালের ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব তাদের সঙ্গে কথা বলতে আসেন। তখন তিনি বলেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী তাদের দাবি মেনে নিয়েছেন। অনশন ভেঙে তাদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে ফিরে যেতে বলেছেন।

এদিকে তাদের হাতে রয়েছে দাবিসংবলিত নানা প্ল্যাকার্ড ও ফেস্টুন। এসব প্ল্যাকার্ডে লেখা রয়েছে ‘সেভ আওয়ার চিলড্রেন’, ‘উই ওয়ান্ট এমপিও’, ‘আমাদের সংগ্রাম চলছে, চলবে’, ‘নন-এমপিও সংগ্রাম চলছে, চলবে’। তারা দাবি বাস্তবায়ন করেই ঘরে ফেরার ঘোষণা দিলেও সরকারের পক্ষ থেকে এখনো কেউ তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি।

দীর্ঘদিন ধরেই এমপিওভুক্তির দাবিতে আন্দোলনের অংশ হিসেবে মানববন্ধন-অনশন-অবস্থান কর্মসূচি পালন করছেন এই শিক্ষক-কর্মচারীরা।

মানবকণ্ঠ/এএম