প্রথম জাপানি হিসেবে ওসাকার গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়

প্রথম জাপানি হিসেবে ওসাকার গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়

সেরেনা উইলিয়ামসকে পরাজিত করে প্রথম জাপানীজ খেলোয়াড় হিসেবে গ্র্যান্ড স্ল্যাম এককের শিরোপা জয়ের রেকর্ড গড়েছেন নাওমি ওসাকা। ২০ বছর বয়সী ওসাকার এটিই প্রথম কোন গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনাল। আর প্রথমবারই সেরেনার মত তারকাকে ফাইনালে পাত্তাই দেননি ওসাকা। ইউএস ওপেনের ফাইনালে গতকাল ৬-২, ৬-৪ সেটে সেরেনাকে উড়িয়ে দিয়ে শিরোপা জিতেছেন জাপানীজ এই তরুণী।

যদিও ম্যাচটিতে পরাজয়ের পাশাপাশি বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন সেরেনা। ২৩ বারের স্ল্যাম জয়ী এই মার্কিন তারকার কাছে এই ধরনের আচরণ কখনই কাম্য নয়। ম্যাচ চলাকালীন কোচের কাছ থেকে পরামর্শ নিয়েছেন, চেয়ার আম্পায়ার কার্লোস রামোস সেরেনার বিপক্ষে এমন অভিযোগ করেন। প্রথমবার তাকে সতর্ক করা হয়। কিন্তু দ্বিতীয়বার আবারো কোড অব কন্ডাক্ট ভঙ্গের দায়ে সেরেনার বিপক্ষে নাওমিকে পেনাল্টি পয়েন্ট প্রদান করা হয়। তখনই সেরেনা ক্ষোভে ফুঁসে উঠেন। এসময় তিনি আম্পায়রকে ‘চোর’ বলেও সম্বোধন করেন।

এ সময় সেরেনা চিৎকার করে বলতে থাকেন, তুমি আমার সম্পর্কে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছো। তুমি একজন মিথ্যুক।

সেরেনার এই ধরনের আচরণে চেয়ার আম্পায়ার নাওমিকে পেনাল্টি পয়েন্টের বিপরীতে এক ম্যাচ উপহার দেন। ওই সময় নাওমি দ্বিতীয় সেটে ৫-৩ ব্যবধানে এগিয়ে যান। সেরেনা এরপর পরের ম্যাচ জয় করেন, কিন্তু কান্না ও ক্ষোভে ফেটে পড়া সেরেনার মানসিক অবস্থা মোটেই অনুকুলে ছিল না। পরের ম্যাচেই নাওমি নিজেকে সংযত রেখে দেশের জন্য ঐতিহাসিক এক জয় উপহার দেন।

ম্যাচ শেষে নাওমি বলেছেন, এই মুহূর্তে ঠিক সেভাবে কোন কিছু অনুভব করতে পারছি না। হতে পারে কয়েকদিন পর আমি বুঝতে পারবো কি অর্জন করেছি। যখন আমি দ্বিতীয় সেটে ৫-৩ ব্যবধানে এগিয়ে ছিলাম তখন কিছুটা বিচলিত হয়ে পড়ি। আমার মনে হয়েছে এবার আমাকে আরো একটি বেশি মনোযোগী হতে হবে। সেরেনা এমন একজন খেলোয়াড় যে কিনা যেকোন সময় যেকোন পরিস্থিতি থেকে ফিরে আসতে পারে।

গত বছর ১ সেপ্টেম্বর কন্যা সন্তান অলিম্পিয়ার জন্মের পর প্রথম কোন গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা জয়ের লক্ষ্যে সেরেনা কোর্টে নেমেছিলেন। কিন্তু মার্গারেট কোর্টের সর্বকালের সর্বোচ্চ ২৪টি স্ল্যাম জয়ের রেকর্ড আর স্পর্শ করতে পারলেন না সেরেনা।

ট্রফি প্রদান অনুষ্ঠানে পুরো স্টেডিয়ামে প্রায় বেশীরভাগ স্বাগতিক সমর্থকই যখন স্বাভাবিকভাবেই সেরেনার জন্য চিৎকার করছিল তখন নাওমি কিছুটা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। ওই সময় নতুন চ্যাম্পিয়নের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সমর্থকদের অনুরোধ জানিয়ে সেরেনা বলেন, সে দারুন খেলেছে। এটা তার প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম। তার এই মুহূর্তটাকে সেরা হিসেবে আমরাই উপহার দিতে পারি।

এদিকে নাওমি স্টেডিয়ামের দর্শকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে বলেছেন, ইউএস ওপেনের ফাইনালে সেরেনার বিপক্ষে খেলাটা সবসময়ই আমার স্বপ্ন ছিল। আমি খুবই সৌভাগ্যবান যে তার বিপক্ষে খেলতে পেরেছি।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.