প্রচিতহলিডেস: সঙ্গী হোক আনন্দময় ভ্রমণের!

আর কিছুদিন বাদেই আসছে ঘুরে বেড়ানোর মৌসুম, নয়নাভিরাম দৃশ্যে ভরপুর সব জায়গায় ঘুরে বেড়ানোর দুর্দান্ত সময়। শত কর্মব্যস্ততার ভিড়ে একটু দম ফেলতে আপনার গন্তব্য হতে পারে সমুদ্র, পাহাড়, ঐতিহাসিক কোনো স্থান কিংবা অ্যাডভেঞ্চারময় কোনো দ্বীপ! আমাদের দেশেও ভ্রমণের জায়গা নেহাৎ কম নয়। সুন্দরবন, কক্সবাজার, সেন্টমার্টিন, কুয়াকাটা, জাফলং ইত্যাদি খুব পরিচিত জায়গা ছাড়াও এখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে ভ্রমণের অনেক জায়গা। এসব জায়গার দৃশ্যও অনেক মনোরম। যেমন কক্সবাজারের প্রতিটি সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত নতুন এবং সুন্দর। আর তাই ‘টেক এ ট্রিপ টেক এ ব্রেথ’ সেøাাগানকে ধারণ করে ভ্রমণ পিপাসুদের প্রয়োজন অনুযায়ী সব সেবা দিতে প্রস্তুত প্রচিত হলিডেস। আপনাদের স্বাচ্ছন্দ্য আর প্রচিত হলিডেসের সেবার প্রতি বিশ্বাস নিয়ে শুরু হতে পারে এই মৌসুমের আনন্দময় ভ্রমণ! এ প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী সাবিনা ইয়াসমীন বলেন, ‘গতানুগতিক ট্রাভেল এজেন্সির ধারণা পাল্টে দিতেই আমরা এসেছি। দেশ এবং দেশের বাইরে সবখানেই আমাদের সাশ্রয়ী ট্যুর প্যাকেজ রয়েছে। এছাড়াও আমরা বিভিন্ন দেশের ভিসা সহায়তা এবং এয়ার টিকিট দিচ্ছি। এর বাইরে আরো কিছু ইউনিক সেবা অচিরেই আমরা চালু করব। আমরা ক্লাইন্টদের সন্তুষ্টি অর্জন করতে চাই।’ সব ভ্রমণকারী এখন ভ্রমণকে এক ধরনের বিনোদন হিসেবেই বিবেচনা করেন। কারো কারো কাছে আবার এটি নেশাও বটে। ভ্রমণপ্রিয় মানুষ বিভিন্ন রূপে বিভিন্ন নামে ভ্রমণে যেতে চান। এ কারণেই ভ্রমণ ভালোবাসেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। রসকষহীন মানুষও ভ্রমণের গন্ধ পেলে কিছুটা নড়েচড়ে বসেন। এমনকি অনেকে ফেসবুকে ইভেন্ট খুলে পঞ্চাশ-ষাট জন মিলে চলে যায় আনন্দ ভ্রমণে। এসব কথা ভেবেই প্রতিষ্ঠানটি খুব সাশ্রয়ী মূল্যে বিভিন্ন দেশের ভিসা সহায়তা দিচ্ছে। এই যেমন, ইন্ডিয়ান ভিসার ই-টেকেন করা যাচ্ছে মাত্র ৩৯০ টাকায়। থাইল্যান্ডের ভিসা করতে পারবেন ৩৯৯০ টাকায়। মালয়েশিয়া ৫৫৯০ টাকা। সিঙ্গাপুর ২৯৯০ থেকে ৫৪৯০ টাকা। চায়নার ভিসা ১০৪৯০ থেকে ১২৪৯০ টাকা। ফিলিপাইন ভিসা ৪৯৯০ টাকা। ইন্দোনেশিয়ার ভিসা ৫৪৯০ টাকা। তুরস্ক ৪৯৯০ থেকে ২৭০০০ টাকা। মিসর ৫১০০ টাকা এবং সেনজেন ভিসা প্রসেসিং ৪৯৯০ টাকা। দেশের বাইরে সাশ্রয়ী মূল্যে কয়েকটি প্যাকেট ট্যুর প্যাকেজ রয়েছে প্রচিত হলিডেসের। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি হলো- ঢাকা-দিল্লি-আগ্রা-জয়পুর ১০ রাত ১১ দিন মাত্র ৩১,৫০০ টাকায়। ৩৭,৫০০ টাকায় প্যাকেজ রয়েছে ৯ রাত ১০ দিনের ঢাকা-কলকাতা-শিমলা-মানালী। ঢাকা-ভুটান-ঢাকা প্যাকেজটি ৩ রাত ৪ দিনের। এ প্যাকেজটির মূল্য রাখা হয়েছে ৩১,৫০০ টাকা। আরো আছে ঢাকা-শিলিগুড়ি-দার্জিলিং-ঢাকা প্যাকেজ মাত্র ১৪,৫০০ টাকায়। এ প্যাকেজটি ৫ রাত ৬ দিনের। এসব প্যাকেজ ছাড়াও আরো বেশ কিছু সাশ্রয়ী ট্যুর প্যাকেজ রয়েছে বলে জানালেন প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী।
প্রচিত হলিডেসের অন্যতম একটি সেবা হলো মেডিকেল টুরিজম। ‘হেলথ অ্যান্ড বিউটি’ সমস্যার সমাধানে থাইল্যান্ডের বিখ্যাত ইয়ানহি হসপিটালের সব সেবার নিশ্চয়তা বাংলাদেশ থেকে একমাত্র এ প্রতিষ্ঠানটি দিয়ে থাকে। ইয়ানহি হাসপাতাল বিশ্ববিখ্যান একটি ব্র্যান্ড। ‘স্কিন অ্যান্ড বিউটি’ সমস্যার সমাধানে এ হাসপাতালটির বিশ্ব জোড়া খ্যাতি রয়েছে। বাংলাদেশ থেকে কেউ থাইল্যান্ডের এ হাসপাতালটিতে যেতে চাইলে যোগাযোগ করতে পারেন প্রচিত হলিডেসের সঙ্গে। শুধু তাই নয়, প্রচিত হলিডেস থেকে এ হাসপাতালে চিকিৎসা করালে পাবেন বিশেষ মূল্য ছাড়। এছাড়াও ভারতের বিভিন্ন হসপিটালে মেডিকেল ভিসা এবং ডাক্তারের অ্যাপয়েন্টমেন্ট সংক্রান্ত বিষয়েরও সহায়তা দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।
উন্নত বিশ্বে ভ্রমণ এখন একটি স্বাভাবিক ব্যাপার। ছুটির সময়গুলোতে তারা বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়ায়। বৈচিত্র্যপূর্ণ বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে জীবনকে সার্থক করে তোলে। তাদের চাহিদা মেটানোর জন্যে গড়ে উঠেছে বিভিন্ন অ বকাশ কেন্দ্র। এগুলো আবার বিভিন্ন ধরনের হোটেল, মোটেল, রেস্টুরেন্ট ও কটেজে সমৃদ্ধ। তবে বাংলাদেশের ভ্রমণ পিপাসুদের আছে অর্থনৈতিক বাধা। স্বচ্ছল পরিবারগুলোর সেরকম ঝামেলা না থাকলেও মধ্যবিত্তদের ঘুরে বেড়ানোটা বেশ কষ্টসাধ্যই। আর এসব কথা মাথায় রেখেই ভ্রমণে ইএমআই (ইকোয়েটেট মান্থলি ইন্সটলমেন্ট) সিস্টেম চালুর পরিকল্পনা করছে প্রচিত হলিডেস। এ প্রসঙ্গে সাবিনা ইয়াসমীন আরো বলেন, ‘ভ্রমণে নগদ টাকা যেন কোনো বাধা হয়ে না দাঁড়ায় সে জন্য আমরা এ উদ্যোগটির কথা ভাবছি। আশা করি খুব দ্রুতই আমরা এ সিস্টেমটি চালু করব।’ প্রচিত হলিডেস থেকে বিভিন্ন দেশের এয়ার টিকিট এবং হোটেল বুকিংও করা যাবে সহজ এবং সাশ্রয়ে।

বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করতে পারেন প্রতিষ্ঠানটির বনানী অফিসে। ১৬ টাওয়ার হ্যামলেট, (৯ম তলা), কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, বনানী, ঢাকা-১২১৩। টেলিফোন: +৮৮০২৯৮২০০১১, +৮৮০২৯৮২০০৮১, ই-মেইল: [email protected] ওয়েবসাইট: www.prochitoholi days.com, চাইলে ফোন করতে পারেন ০১৭৩০৩০৬২৩৮ এবং ০১৭৩০৩০৬২৪১ এই নম্বরে।

মানবকণ্ঠ/আরএস