পুনঃনির্বাচনের কোনো সুযোগ নেই: ভিসি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদে পুনঃনির্বাচন সম্ভব নয়। রীতি নীতি অনুয়ায়ী সময়মত ডাকসুতে নির্বাচিত প্রতিনিধিদের শপথ অনুষ্ঠিত হবে। 

বুধবার দুপুরে উপাচার্য কার্যালয় থেকে বের হবার সময় তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকারে এসব কথা বলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান।

এসময় অধ্যাপক আখতারুজ্জামান আন্দোলনকারীদের সতর্ক করে বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বিনষ্ট এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টা করা হলে তা মেনে নেয়া হবে না।

২৮ বছর পর অনুষ্ঠিত ১১ মার্চের নির্বাচন নিয়ে তিনি বলেন, ডাকসু নির্বাচন সফল করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাড়ে চারশ’ শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীর শ্রম-সময় ও মেধার যে খরচ হয়েছে তার প্রতি অসম্মান জানাতে পারি না। তাদের শ্রমকে অসম্মান করার এখতিয়ার আমার নেই।

এর আগে ভিসি আখতারুজ্জামানের সঙ্গে তার কার্যালয়ে দেখা করেন ভিপি নুরুল হক নুরসহ ডাকসু নির্বাচনে অংশ নেয়া পাঁচটি প্যানেলের প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীরা। তারা পুনর্নির্বাচনের দাবিতে উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দেন।

এর আগে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে প্রোভিসি মুহাম্মদ সামাদ বলেছিলেন, ডাকসু নির্বাচন বাতিল করা সম্ভব নয়।

প্রসঙ্গত, ১১ মার্চের নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম, কারচুপি ও জালভোটের অভিযোগ তুলে তা বর্জন করে ছাত্রদল, বামজোট, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদসহ অন্তত ৫টি প্যানেল।তারা পুনঃতফসিল বাতিল চেয়ে আন্দোলন করছে।

মানবকণ্ঠ/এআর

Leave a Reply

Your email address will not be published.