পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের বল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোর্টে: কিম

পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের বল এখন যুক্তরাষ্ট্রের কোর্টে: কিম

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন বলেছেন, কোরীয় উপদ্বীপকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার জন্য তিনি আর এককভাবে কোনো পদক্ষেপ নেবেন না। এর পরিবর্তে তিনি এরইমধ্যে পিয়ংইয়ং’র পক্ষ থেকে নেয়া পদক্ষেপগুলোর বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্র কী করে সেটা দেখার জন্য অপেক্ষা করবেন।

রুশ পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটের স্পিকার ভ্যালেন্তিনা ম্যাতভিয়েঙ্কো রোববার পিয়ংইয়ংয়ে উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে কিম এসব কথা বলেন। খবর : এএফপির।

ম্যাতভিয়েঙ্কো সোমবার ওই সাক্ষাতের বরাত দিয়ে রুশ বার্তা সংস্থা রিয়া নোভোস্তিকে জানিয়েছেন, কিম তাকে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে পাল্টা পদক্ষেপ না নেয়া পর্যন্ত উত্তর কোরিয়া পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের জন্য আর কোনো কাজ করবে না।

রুশ পার্লামেন্ট স্পিকার বলেন, উত্তর কোরিয়া চায় তারা যতটুকু অগ্রসর হবে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে ততটুকু অগ্রসর হতে হবে। পিয়ংইয়ং’র ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার না করায় কিম জং-উন ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন। উত্তর কোরিয়ার নেতা বলেছেন, তার দেশ সব কাজ শেষ করার পর যুক্তরাষ্ট্র কি করে সেটা দেখার জন্য অপেক্ষা করতে পারবে না।

উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করা এবং একটি পরমাণু স্থাপনা ধ্বংস করাকে ম্যাতভিয়েঙ্কো ‘দুটি অতি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ’ বলে প্রশংসা করেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ১২ জুন সিঙ্গাপুরে উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে বিরল বৈঠকে মিলিত হন। ওই বৈঠকে কোরীয় উপদ্বীপকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করতে সম্মত হন দুই নেতা। ওয়াশিংটন বলছে, উত্তর কোরিয়া তার সব পরমাণু অস্ত্র ধ্বংস করার পরই কেবল দেশটির ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে। কিন্তু পিয়ংইয়ং ওয়াশিংটনের এ দাবি মেনে নিতে প্রস্তুত নয়।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.