পরমাণু অস্ত্রের জন্য আমেরিকাকে জবাবদিহী করতে হবে: উত্তর কোরিয়া

উত্তর কোরিয়া

উত্তর কোরিয়া বলেছে, আমেরিকার হুমকির মোকাবিলায় আত্মরক্ষার লক্ষ্যে পরমাণু অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করেছে দেশটি। পিয়ংইয়ং আরো বলেছে, এসব অস্ত্র বিশ্বের কোনো দেশের জন্য হুমকি সৃষ্টি করছে না।

শুক্রবার রাতে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ও পরমাণু অস্ত্র বিষয়ক এক বৈঠকে এ মন্তব্য করেন জাতিসংঘে নিযুক্ত উত্তর কোরিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি জ্যা জং ন্যাম। তিনি বলেন, মার্কিন পরমাণু হুমকির মোকাবিলায় দেশের অস্তিত্ব ও স্বাধীনতা রক্ষা করার লক্ষ্যে উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্র তৈরি করেছে। খবর : এএফপির।

উত্তর কোরিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি সুস্পষ্ট করে বলেন, পরমাণু অস্ত্র তৈরির জন্য যদি কাউকে জবাবদিহী করতে হয় তাহলে সে দেশটি আমেরিকা; উত্তর কোরিয়া নয়।

নিরাপত্তা পরিষদের একই বৈঠকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন তার আগে বক্তব্য থেকে সরে গিয়ে আলোচনায় বসার জন্য আগে উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

এর আগে গত সপ্তাহে টিলারসন বলেছিলেন, উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যেকোনো সময় যেকোনো বিষয়ে আলোচনায় বসতে প্রস্তুত রয়েছে আমেরিকা।

চলতি বছর উত্তর কোরিয়া বেশ কিছু পরমাণু অস্ত্র ও ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। ওয়াশিংটন পিয়ংইয়ংকে সমরাস্ত্র পরীক্ষা বন্ধ করার আহ্বান জানালেও উত্তর কোরিয়া বলছে, আমেরিকা ও তার মিত্র দেশগুলোর বিদ্বেষী নীতি বন্ধ না হলে দেশটি এ ধরনের পরীক্ষা চালিয়ে যাবে।

মানবকণ্ঠ/এসএস