পবিত্র আশুরা

আজ পবিত্র আশুরা। আরবি পঞ্জিকা অনুযায়ী পবিত্র মহরম মাসের ১০ তারিখ। মুসলিম উম্মাহর জন্য তাৎপর্যময় ও শোকাবহ দিন। এই দিনে যুগে যুগে অনেক ঐতিহাসিক ও গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ঘটেছে। আদি মানব হজরত আদম (আ.) আজকের এই দিনে পৃথিবীতে আগমন করেন এবং এই দিনেই তাঁর তওবা কবুল হয় বলে উল্লেখ আছে। মহরম মাসের ১০ তারিখেই হজরত মুসা (আ.) ফেরাউন বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা পান। এই দিনে হজরত নূহ (আ.)-এর নৌকা মহাপ্লাবন থেকে রক্ষা পায়। এ ছাড়াও এ মহিমান্বিত দিনে অনেক তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা ঘটেছে বলে ইসলামের ইতিহাসে উল্লেখ আছে। ১০ মহরম অনেক গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যময় ঘটনা ঘটলেও সর্বশেষ কারবালায় ঘটে যাওয়া মর্মান্তিক ঘটনার স্মরণেই মুসলিম বিশ্বে দিনটি পালিত হয়। শেষ নবী হজরত মুহম্মদ (সা.)-এর প্রিয় দৌহিত্র, চতুর্থ খলিফা হজরত আলী (রা.) ও খাতুনে জান্নাত ফাতেমা জোহরা (রা.)-এর পুত্র হজরত ইমাম হোসেন (রা.) অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে চক্রান্তকারী ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে এ দিনে নির্মমভাবে শহীদ হন। এ দিনে কারবালা প্রান্তরে সেনাবাহিনী পাঠিয়ে ইমাম হোসেন (রা.)-এর পরিবারবর্গ এবং সঙ্গী-সাথীদেরও হত্যা করেছিল ইয়াজিদ। ফোরাত নদীর কূল আটকে পিপাসার্ত নর-নারী-শিশুদের হত্যাকাণ্ডের স্মরণে মহরম মাসের ১০ তারিখে পবিত্র আশুরা পালন করা হয়। মুসলমানদের কাছে দিনটি একদিকে শোকের, অন্যদিকে হত্যা ও ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণের চেতনায় উজ্জ্বল। প্রাচীনকাল থেকেই পবিত্র আশুরা পালিত হয়ে আসছে। ইসলামের এক কঠিন পরীক্ষার দিন এই আশুরা। আশুরা ইসলামের ইতিহাসে যোগ করেছে নতুন মাত্রা। ন্যায় ও ধর্মকে সমুন্নত রাখতে ত্যাগ, দুঃখ-বেদনা সহ্য, এমনকি আত্মাহুতি দিতেও পিছপা না হওয়ার শিক্ষা দেয় ১০ মহরম। পবিত্র আশুরার শিক্ষাই হচ্ছে অন্যায় ও অসত্যের কাছে মাথানত না করা। মিথ্যার কাছে নতিস্বীকার না করা। এ দিনেই ধর্মের নামে অধর্ম ও অন্যায়ের অশুভ শক্তি ইসলামের সত্যবাণী ও ন্যায়ের ওপর আঘাত করেছিল, আশ্রয় নিয়েছিল প্রতারণার। হজরত ইমাম হোসেন (রা.) সেদিন ন্যায় ও সত্যের জন্য চরম আত্মত্যাগের যে দৃষ্টান্ত রেখে গেছেন তা অনুকরণীয়। শোকের মাতমে পবিত্র আশুরার আদর্শ থেকে বিস্মৃত হওয়া চলবে না। আজকের এই দিনে প্রকৃত ধার্মিক ও সত্যসেবী ইমানদার মুসলমানদের এই সত্য উপলব্ধি করতে হবে, সব অসত্য ও অন্যায় রুখে দাঁড়াতে হবে। আশুরার শিক্ষা গ্রহণ করে অন্যায়-অবিচার, ষড়যন্ত্র-কুটিলতা থেকে পৃথিবীকে মুক্ত করতে কারবালার ত্যাগের মহিমায় আমাদের সবার অন্তর আলোকিত ও শুদ্ধ হোক। পবিত্র আশুরার দিনে এটাই আমাদের প্রার্থনা।