‘নিরাপত্তা পরিষদ রোহিঙ্গা ইস্যুতে ব্যর্থ’

মিয়ানমার সেনা বাহিনী রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে যে নৃশংসভাবে জাতিগত নিধনযজ্ঞ চালাচ্ছে সে বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। মঙ্গলবার জাতিসংঘ সদর দফতরে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে নিরাপত্তা পরিষদের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ আনে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার বিষয়ক শীর্ষ দুটি সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ও অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

যৌথ সংবাদ সম্মেলনে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ও অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দুই প্রতিনিধি বলেন, নিরাপত্তা পরিষদ হলো জাতিসংঘের সবচেয়ে শক্তিশালী সংগঠন। রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে গণহত্যা চালানো হলেও মুখ খুলতে ব্যর্থ হয়েছে নিরাপত্তা পরিষদ। এমন কি চলমান এই সহিংসতা অবিলম্বে বন্ধের আহ্বান জানাতেও ব্যর্থ হয়েছে।

উল্লেখ্য, সুইডেন ও ব্রিটেনের আহ্বানে বুধবার নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠকের আগে এ ধরনের সংবাদ সম্মেলন করে সংগঠন দুটি। সেখানে একটিই এজেন্ডা ছিল এবং তা হলো রাখাইনে রোহিঙ্গা সংকট। মঙ্গলবার জাতিসংঘ বলেছে, ২৫ আগস্ট রাখাইনে সহিংসতা শুরুর পর পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে কমপক্ষে তিন লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা। প্রতিদিন আসছে হাজার হাজার রোহিঙ্গা।

সংবাদ সম্মেলনে হিউম্যান রাইটস ওয়াচের জাতিসংঘে নিযুক্ত পরিচালক লুইস চারবোনেউ রোহিঙ্গা সংকটের বিষয়ে বলেন, এটা একটি আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তার হুমকি। আর এ সময় নীরবে বসে থাকায় নিরাপত্তা পরিষদের কোনো অজুহাত থাকতে পারে না।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published.