নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রশ্নে আপস করবে না ইসি

নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রশ্নে আপস করবে না ইসি

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে চোখ-কান খোলা রেখে সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রশ্নে কোনো ধরনের আপস করা চলবে না জানিয়ে নির্বাচনে দায়িত্বরতদের নিরপেক্ষতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন উঠলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও সতর্ক করে দেয়া হয়েছে।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনের ইটিআই ভবনে শনিবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ইভিএম ব্যবহার এবং সফটওয়্যার সংক্রান্ত একটি প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব নির্দেশনা দেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী। ইটিআই মহাপরিচালক মোস্তফা ফারুক এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, একটি অবাধ সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য পুরো জাতি নির্বাচন কমিশনের দিকে তাকিয়ে আছে। আমরা জাতির সে প্রত্যাশা পূরণে বদ্ধপরিকর। আমরা চাই, আপনারা প্রত্যেকে দল-মত নির্বিশেষে আপনাদের নিরপেক্ষতা বজায় রাখবেন।

নিরপেক্ষতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন উঠলে নির্বাচন কমিশন আইনানুগ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেবে বলেও সতর্ক করেন নির্বাচন কমিশনার। তিনি এ সময়, উপজেলা ও থানা নির্বাচন কর্মকর্তাদের নির্বাচন সংক্রান্ত সব কাজ আইনানুগভাবে করার পাশাপাশি নিরপেক্ষতা বজায় রাখার নির্দেশনা দেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তেব্য ইটিআই মহাপরিচালক মোস্তফা ফারুক বলেন, নির্বাচন সংক্রান্ত সব কাজ আইনানুগভাবে করতে হবে ও নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে হবে। তিনি বলেন, এবারের নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নির্বাচনের কাজে কোনো ধরনের অবহেলা হলে কমিশন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে।

উল্লেখ্য, আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণের দিন ঠিক করা হয়েছে। কিন্তু নির্বাচন উপলক্ষে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরিতে ইসির ভূমিকা নিয়ে একাধিকবার প্রশ্ন তুলেছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন বিরোধীপক্ষ। তার জবাবে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকেও নানা বক্তব্য দেয়া হচ্ছে। এসব অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ঘোষণা দেয়া হয়, পৃথিবীর কোথাও শতভাগ সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না। তবে বর্তমান কমিশন একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে চায়, যা নিয়ে কারো প্রশ্ন থাকবে না।

মানবকণ্ঠ/এসএস