নিজের খোঁড়া গর্তে নিজেদেরই পড়তে হয়: রিজভী

নিজের খোঁড়া গর্তে নিজেদেরই পড়তে হয়: রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, সময় অতি আসন্ন। যে কারাগার অন্যের জন্য তৈরি করা হয়, সেই কারাগারে নিজেদের ঢুকতে হয়-এটিকেই বলে প্রকৃতির প্রতিশোধ। নিজের খোঁড়া গর্তে নিজেদেরই পড়তে হয়। এ বিষয়টি ভাবার জন্যও ক্ষমতাসীনদের অনুরোধ করছি।

শুক্রবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সিইসিকে উদ্দেশ করে রিজভী বলেন, বৃহস্পতিবার সিইসি বলেছেন-নির্বাচনের ভূমি সমতল থাকবে। নেতাকর্মীদের গ্রেফতার হয়রানি ও সমাবেশে বাধা প্রদানকে কি সমতল ভূমি বলে? মূলত রাজনৈতিক ময়দান সম্পূর্ণভাবে সরকারের অনুকূলে সমতল রাখার যাবতীয় বন্দোবস্ত করছে নির্বাচন কমিশন।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, রাজশাহীতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ কেন্দ্র করে রাজশাহী ও আশপাশের জেলায় চলছে গ্রেফতার অভিযান। নেতাকর্মীরা যেন সমাবেশে যোগ দিতে না পারে, সে জন্য শহরে ঢোকার বিভিন্ন পয়েন্টে তল্লাশিচৌকি বসিয়ে চিরুনি অভিযান চলছে।

রিজভী বলেন, বিএনপির অসংখ্য নেতাকর্মীর বাসায় গোয়েন্দা পুলিশ হানা দিয়েছে। বৃহত্তর রাজশাহী জেলায় পরিবহন ধর্মঘট করানো হয়েছে সুপরিকল্পিতভাবে। র‌্যাব, ডিবি ও পুলিশ হর্ন বাজিয়ে শহরজুড়ে মহড়া দিচ্ছে, আতঙ্ক ছড়িয়ে শহরকে ফাঁকা করার জন্য।

তিনি বলেন, আওয়ামী ক্যাডাররা মাইক্রোবাস স্ট্যান্ডে গিয়ে বাসচালকদের কাছ থেকে জোর করে গাড়ির চাবি কেড়ে নিচ্ছে।

এ সময় অবিলম্বে দেশনেত্রীর মুক্তিসহ সব রাজবন্দিকে মুক্তি দিয়ে দেশের সংকট সমাধান করার আহ্বান জানান তিনি। পাশাপাশি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাত দফা ও নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করে নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণ ও প্রচারে সবার সমান সুযোগ সৃষ্টি করতে সহায়তা করার আহ্বান জানান।

মানবকণ্ঠ/এসএস