নাইন-ইলেভেন মেমোরিয়ালের ৩৬০ ডিগ্রি ভিডিও

বিস্মৃতিতে নাইন ইলেভেন

নাইন ইলেভেন, যা পাল্টে দিয়েছিলো বিশ্ব রাজনৈতিকেভিডিও: রয়টার্স

Posted by Daily Manobkantha on Monday, September 10, 2018

 

[মাউস ধরে টেনে চারপাশের ৩৬০ ডিগ্রি দেখা যাবে এ ভিডিওতে]

ইতিহাসের বিভীষিকাময় নাইন ইলেভেন আজ। ১৭ বছর আগে ২০০১ সালের এ দিনে নিউ ইয়র্কের টুইন টাওয়ারে আত্মঘাতী বিমান হামলা চালায় জঙ্গি গোষ্ঠী আল কায়েদা। ওই হামলায় নিহত হয় প্রায় ৩ হাজার মানুষ। এরপর থেকে বিশ্বব্যাপী মার্কিন নেতৃত্বাধীন সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান শুরু হয়।

নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় তখন সকাল পৌনে নয়টা। চারটি মার্কিন যাত্রীবাহী উড়োজাহাজ ছিনতাই করে তার মধ্যে দু’টো নিয়ে টুইন টাওয়ারে হামলা চালায় আল কায়েদা। গুঁড়িয়ে যায় ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের ভবন দু’টি।

মার্কিন এয়ারলাইন্সের ছিনতাই করা আরেকটি উড়োজাহাজ নিয়ে হামলা চালানো হয় মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগনে। আর যাত্রীদের বাধায় নির্ধারিত স্থানে হামলা চালাতে ব্যর্থ হয়ে পেনসিলভেনিয়ার আকাশে বিধ্বস্ত হয় চতুর্থ প্লেনটি। নাইন ইলেভেন-টুইন টাওয়ার-পেন্টাগন

ঘটনার পর থেকেই সারাবিশ্বে সন্ত্রাস ও ইসলামি জঙ্গি দমন অভিযানে নামে যুক্তরাষ্ট্র। আল কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে ২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে হত্যা করে মার্কিন বিশেষ বাহিনী ‘নেভি সিল’৷

আল কায়েদা অনেকটা দুর্বল হলেও বিশ্ব জুড়ে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছে একাধিক জঙ্গি সংগঠন। আফ্রিকায় আছে বোকো হারাম, ইরাকের বড় অংশ জুড়ে রয়েছে কথিত ইসলামিক স্টেট (আইএস)। সিরিয়ায় বাশার আল আসাদ আর ইরাকে নুরি আল মালিকির সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধরতদের সঙ্গেও রয়েছে ইসলামি মৌলবাদী কর্মীরা।

১৭ বছর আগে নিহত, আহত এবং তাদের স্বজনের প্রতি মঙ্গলবার শ্রদ্ধা ও সমবেদনা জানাবে যুক্তরাষ্ট্র। ধ্বংসপ্রাপ্ত সেই টুইন টাওয়ারের জায়গায় এখন গড়ে তোলা হয়েছে ‘ন্যাশনাল সেপ্টেম্বর ইলেভেন মেমোরিয়াল অ্যান্ড মিউজিয়াম’। সেখানে ৩০ ফুট উচ্চতার একটি ঝর্ণাধারা ঘিরে চার দেয়ালে ব্রোঞ্জের হরফে খোদাই করা হয়েছে নিহতদের নাম। নাইন-ইলেভেনের দশম বার্ষিকীতে চালু হওয়া এই জাদুঘর এখন নিউ ইয়র্কে আসা পর্যটকদের অন্যতম আগ্রহের জায়গা।

মানবকণ্ঠ/এসএস