নতুন করে ভোটের দাবি ‘হাস্যকর’: ছাত্রলীগ

নতুন করে ভোটের কথা বলা হাস্যকর ও এটি সম্পূর্ণ অযৌক্তিক বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে ছাত্রলীগের ভিপি পদপ্রার্থী রেজওয়ানুল হক চৌধুরী।

সোমবার মধুর ক্যান্টিনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন ছাত্রলীগ নেতা শোভন। ইতোমধ্যে ডাকসু নির্বাচন ছাত্রলীগ ছাড়া অন্যসব সংগঠন বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে। ওইসব সংগঠন নির্বাচন বাতিল করে পুনরায় করার দাবি জানিয়েছে।

রেজওয়ানুল হক বলেন, কুয়েত মৈত্রী হলে যে ব্যালট পাওয়া গেছে সেই ব্যালটের সাথে হলের ব্যালটের মিল নাই। প্রভোস্টের সাইনেরও খোলা ব্যালটের মিল নেই। দীর্ঘ ২৮ বছর পর যে নির্বাচন হচ্ছে সেটিকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য একটি মহল এ কাজটি করেছে।

ভোট বাতিল প্রসঙ্গে রেজওয়ানুল বলেন, মাত্র দুইটি হলে ঘটনা ঘটেছে। রোকেয়া হলে ভোটকেন্দ্রে হয়নি। গতকাল সব সংগঠন একত্রিত হয়ে কাজটি করবে তা অনুমান করতে পেরেছিলাম। তারই ফলশ্রুতিতে আজকের এ ঘটনা।

তিনি বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে৷রোকেয়া হলে কেন্দ্রের ভেতরে নুরুল ও লিটন নন্দীকে মারধরের ঘটনা ভিত্তিহীন।

সংবাদ সম্মেলনে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুতে ছাত্রলীগ প্যানেলের জিএস প্রার্থী গোলাম রাব্বানী বলেন, আমরা চেয়েছি শতভাগ ভোট কাস্ট হোক। প্রতিটি হলে পর্যাপ্ত বুথের কথা আমরা বলেছিলাম। সেটা হয়েছেও।আমরা আন্তরিক, যেন সবাই ভোট দিতে পারে। সবাই দেখেছে রোকেয়া হলে কীভাবে দরজা ভেঙে শিক্ষককে লাঞ্ছিত করে কীভাবে নিয়ে এসেছে ব্যালট।

গোলাম রাব্বানী বলেন, সুন্দর পরিবেশ বামসংগঠনসহ ছাত্রদলের বিভিন্ন নেতারা যে তাণ্ডব চালিয়েছে, তার আমরা নিন্দা জানাই।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

মানবকণ্ঠ/এএম