নটরডেম কলেজের আইটি ফেস্টিভ্যালে নজর কেড়েছে ওয়ালটন ল্যাপটপ

নটরডেম কলেজের আইটি ফেস্টিভ্যালে নজর কেড়েছে ওয়ালটন ল্যাপটপ

রাজধানীর নটরডেম কলেজে অনুষ্ঠিত হলো আইটি ফেস্টিভ্যাল। এতে টেক পার্টনার হিসেবে ছিল দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন। ফেস্টিভ্যালে শিক্ষার্থীদের নজর কেড়েছে ওয়ালটনের ল্যাপটপ এবং কম্পিউটারের বিভিন্ন অ্যাক্সেসরিজ। ওয়ালটন ল্যাপটপের ডিজাইন ও পারফরমেন্সে মুগ্ধ হয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

গত ২৩-২৪ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ওই আইটি ফেস্টিভ্যালের আয়োজন করে নটরডেম ইনফরমেশন টেকনোলজি ক্লাব। রাজধানীর মতিঝিলে নটরডেম কলেজ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত ‘এনডিআইটিসি ইন আইটি ২০১৮’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী এই ইভেন্টে বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েক হাজার প্রতিযোগী এবং দর্শনার্থী অংশ নেন। শিক্ষার্থীদের জন্য ছিল প্রোগ্রামিং কনটেস্ট, হ্যাকাথন, রোবট প্রদর্শন, ডিজিটাল পোস্টার ডিজাইনিং, ওয়েব পেজ ডিজাইনিং, অলিম্পিয়াড, কোড ডিবাগিং, হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার, প্রোজেক্ট ডিসপ্লেসহ বিভিন্ন ইভেন্ট।

ওয়ালটনের পক্ষ থেকে প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের বিশেষ উপহার দেয়া হয়। ইভেন্টের শেষদিনে প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন নটরডেম কলেজের অধ্যক্ষ ফাদার ড. হেমন্ত পিউস রোজারিও সিএসসি।

আইটি ফেস্টিভ্যালের প্রোগ্রামিং কনটেস্টে ব্যবহৃত হয় ওয়ালটন ল্যাপটপ। প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা ওয়ালটন ল্যাপটপ ব্যবহার করে সন্তোষ প্রকাশ করেন। বাংলাদেশেই উচ্চমানের ল্যাপটপ-কম্পিউটার তৈরি হচ্ছে জেনে তারা আশ্চর্য হন। এছাড়াও, ইভেন্টের পুরোটা সময় জুড়ে ওয়ালটন ল্যাপটপ স্টলে দর্শনার্থীদের ব্যাপক উপস্থিতি ছিল। অনেকেই ওয়ালটন ল্যাপটপ হাতে নিয়ে দেখেন। আকর্ষণীয় ডিজাইন এবং উচ্চমানের ওয়ালটন ল্যাপটপ, কি-বোর্ড, মাউস, পেন ড্রাইভসহ বিভিন্ন প্রযুক্তিপণ্য দেখে তারা অভিভূত হন।

ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ জানায়, ল্যাপটপ ক্রয়ে শিক্ষার্থীদের বিশেষ সুবিধা দিচ্ছেন তারা। ওয়ালটন প্লাজা এবং ব্র্যান্ড আউটলেট থেকে মাত্র ২০ শতাংশ ডাউনপেমেন্ট দিয়ে জিরো ইন্টারেস্টে ৩ মাসের কিস্তিতে শিক্ষার্থীরা কিনতে পারেন ওয়ালটন ল্যাপটপ। তাছাড়া অনলাইনে ই-প্লাজার মাধ্যমে ক্রয়ে রয়েছে আকর্ষণীয় ডিসকাউন্টের সুবিধা।

জানা যায়, বর্তমানে বাজারে রয়েছে ২৩ মডেলের ওয়ালটন ল্যাপটপ। দুই বছরের ওয়ারেন্টিসহ যেগুলোর দাম ১৯ হাজার ৯৯০ টাকা থেকে ৭৯ হাজার ৯৫০ টাকার মধ্যে। এছাড়া রয়েছে ১৩ মডেলের ওয়ালটন ডেস্কটপ পিসি। ৩ বছরের ওয়ারেন্টিসহ যেগুলোর দাম ২৩ হাজার ৫৫০ টাকা থেকে ৪৪ হাজার ৯৯০ টাকা। দুই মডেলের মনিটরের একটির দাম ১৩ হাজার ৯৯০ টাকা। অন্যটির মূল্য ৮ হাজার ৫৫০ টাকা।

অন্যদিকে, ওয়ালটনের রয়েছে ২৬ মডেলের গেমিং ও স্ট্যান্ডার্ড অপটিক্যাল মাউস। দাম মাত্র ১৯৫ টাকা থেকে ৭৫০ টাকার মধ্যে। সব ধরনের ওয়ালটন মাউসে রয়েছে ৬ মাসের রিপ্লেসমেন্ট ওয়ারেন্টি। আছে ১৫ মডেলের ওয়ালটন গেমিং এবং স্ট্যান্ডার্ড কিবোর্ড। এগুলোর দাম ২৪০ থেকে ৯৫০ টাকার মধ্যে। ওয়ালটন কিবোর্ডের বিশেষত্ব হলো বাংলা ফন্টের সংযোজন। স্ট্যান্ডার্ড ইংরেজির পাশাপাশি বাংলা ফন্ট থাকায় বাংলা ভাষাভাষী যে কেউ অনায়াসেই ব্যবহার করতে পারবেন এসব কিবোর্ড। সব ধরনের ওয়ালটনের কিবোর্ডেও রয়েছে ৬ মাসের রিপ্লেসমেন্ট ওয়ারেন্টি।

এছাড়াও ওয়ালটনের কম্পিউটার অ্যাক্সেসরিজে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের পেন ড্রাইভ। ১৬ জিবি পেন ড্রাইভের মূল্য ৫৭০ টাকা থেকে ৮৯০ টাকার মধ্যে। আর ৩২ জিবির মূল্য ৭৯০ থেকে ১ হাজার ৩৯০ টাকার মধ্যে।

মানবকণ্ঠ/এসএস