দেশে সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্ট তৈরিতে সহায়তা দেবে ইমপারভা

দেশে সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্ট তৈরিতে সহায়তা দেবে ইমপারভাবিশ্বের জনপ্রিয় সাইবার সিকিউরিটি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ইমপারভা বাংলাদেশে সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্ট তৈরি করতে প্রয়োজনীয় সহায়তা দেয়ার আশ্বাস দিয়েছে। সম্প্রতি রাজধানীর ঢাকা ক্লাবের পদ্মা লাউঞ্জে আয়োজিত ‘প্রটেকটিং ইওর ক্রিটিকাল ডাটা অ্যান্ড অ্যাপ্লিকেশন’ শিরোনামে এক কর্মশালায় প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ প্রতিনিধিরা এই আশ্বাস দেন। কর্মশালাটি সঞ্চালনা করেন সিটিও ফোরামের সভাপতি তপন কান্তি সরকার।

এসময় তারা বলেন, বাংলাদেশে ইমপারভা তাদের অস্তিত্ব জানান দিতে চায়। এজন্য এদেশে সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্ট তৈরি করা হবে। এ খাতে স্থানীয় জনশক্তিতে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্ট হিসেবে তৈরি করা হবে। এসব এক্সপার্টরা বাংলাদেশে সাইবার জগতে সুরক্ষার জন্য কাজ করবে।

যৌথভাবে এই কর্মশালার আয়োজন করে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস), বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস(বেসিস), আইএসএ, এনজিএক্স এবং ইটিপিএল।

কর্মশালার প্রধান অতিথি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, বাংলাদেশে মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনেক গুন বৃদ্ধি পেয়েছে এবং অধিকাংশ মোবাইল ব্যবহারকারী ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত হচ্ছে। তাই অামরা তাদেরকে সাইবার আক্রমন থেকে রক্ষা করতে চাই এবং এক্ষেত্রে দেশে সাইবার নিরাপত্তা জনবল তৈরি ও দেশের সাইবার নিরাপত্তা অবকাঠামো তৈরিতে বিদেশি কোম্পানীর সহিত কাজ করতে চাই।

কর্মশালায় বিসিএস সভাপতি ইঞ্জি. সুব্রত সরকার বলেন, একটি প্রতিষ্ঠানের জন্য অনলাইন ডাটা এবং অ্যাপ্লিকেশন মূল্যবান সম্পদ। ডাটা হলো মেধাসম্পদ। অন্যদিকে অ্যাপস হলো ব্যবসার জীবনী শক্তি। তাই এসব সম্পদকে নিজস্ব প্রযুক্তি ও এক্সপার্ট দিয়ে সুরক্ষিত রাখতে হবে।

এশিয়া প্যাসেফিক কাউন্সিল ফর ট্রেড ফ্যাসিলিটেশন অ্যান্ড ইলেকট্রনিক বিজনেস (এএফএসিটি) এর চেয়ারপার্সন আলী আশফাক বলেন, হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ চুরির পর থেকে বাংলাদেশের মানুষ সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টি সক্রিয়ভাবে নজরে আনে। অামরা এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি চাই না এবং সরকারি বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠানের সাইবার নিরাপত্তা রক্ষায় কাজ করতে চাই।

কর্মশালায় টেকনিক্যাল সেশন পরিচালনা করেন ইমপারভার এশিয়ানভূক্ত দেশের আঞ্চলিক বিক্রয় পরিচালক গারেন লিং। তিনি তার উপস্থাপনায় বলেন, ব্যাংক এবং অন্যান্য ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানের তথ্য সুরক্ষার জন্য ইমপারভার একটি নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করে থাকে। যার ফলে এসব প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ ডাটা ও অ্যাপ্লিকেশন থাকে সুরক্ষিত। যেমন আপনি আপনার বাড়ির সুরক্ষা নিশ্চিত করেন। যাতে করে আপনার বাড়িতে চোর ঢুকতে না পারে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের প্রতিষ্ঠান (ইমপারভা) প্রতিটি ডাটা বেজ বিশেষ কায়দায় সংরক্ষণ ও সুরক্ষা ব্যবস্থা নিশ্চিত করে থাকে। একাজে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সহায়তা নেয়া হয়। ফলে তথ্য সুরক্ষা সর্বাগ্রে প্রাধান্য পায়।

কর্মশালায় জানানো হয়, ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠিত ইমপারভা সাইবার সিকিউরিটি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। বিশ্বব্যাপী তাদের ৫২০০ গ্রাহক, ৫০০ অংশীদার রয়েছে। ১০০ টিরও বেশি দেশে ইমপারভা সেবা দিয়ে আসছে। ফলে তাদের মুনাফার পরিমান দাঁড়িয়েছে ২৬৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

কর্মশালায় আরো ‍উপস্থিত ছিলেন বিসিএস এর সহ-সভাপতি ইউসুফ আলী শামীম, পরিচালক শাহিদ-উল-মুনীর, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের নব-নিযুক্ত ভাইস-চ্যান্সেল প্রফেসর ড. মুনাজ আহমেদ নূরসহ তথ্যপ্রযুক্তি ও ব্যাংকিং খাতের কর্মকর্তা প্রমুখ।

মানবকণ্ঠ/ডিএইচ