দেশে-বিদেশে প্রচার-প্রচারণা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রবাসী অধ্যুষিত সুনামগঞ্জ-৩ আসনকে ঘিরে দেশে-বিদেশে চলছে প্রচার-প্রচারণা। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীরা শুধু দেশেই প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন না। তারা ব্রিটেনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারণা। এতে যুক্ত হচ্ছেন তাদের আত্মীয়-স্বজনরাও। নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীদের আত্মীয়-স্বজনরা দেশে আসছেন। একাদশ জাতীয় নির্বাচনের সময় যত এগিয়ে আসছে ততই প্রচারণা বাড়ছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের।

নিজেদের উন্নয়ন কাজের ফিরিস্তি তুলে ধরে এলাকার ভোটারদের সঙ্গে শক্ত অবস্থান তৈরি করার চেষ্টা করছেন। আবার অনেকে নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মাঠে রয়েছেন। ইতিমধ্যে কেউ কেউ ব্রিটেনসহ বিভিন্ন দেশ থেকে দেশে ফিরছেন নিজ এলাকায়। কেউ কেউ আবার ব্রিটেনে গেছেন আত্মীয়-স্বজনদের কাছ থেকে দোয়া চাইতে ও অর্র্থ সংগ্রহ করতে। জগন্নাথপুর ও নবগঠিত দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নিয়ে সুনামগঞ্জ-৩ আসন গঠিত হয়েছে। এ আসনের মহাজোট ও ২০ দলীয় জোটে রয়েছেন একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী।

এ আসনে বর্তমান অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নানের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মাঠে রয়েছেন স্বাধীন বাংলার প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুস সামাদ আজাদের পুত্র মেরিন ইঞ্জিনিয়ার আজিজুস সামাদ ডন। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ডন এম এ মান্নানের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। ডন এ আসনে মনোনয়ন পাওয়ার জন্য জনসংযোগেও রয়েছেন এগিয়ে। এ ছাড়াও এ আসনের যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুক, কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ইসলাম আলী কিছুদিন আগে সুনামগঞ্জে সংবাদ সম্মেলন করে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা করেছেন।

এ আসনে ২০ দলীয় জোটেরও রয়েছেন একাধিক প্রার্থী। জেলা বিএনপির সাবেক সহসভাপাতি লে. কর্নেল (অব.) সৈয়দ আলী আহমদ, বর্তমান সহসভাপতি ও দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ, আনছার উদ্দিন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মাওলানা শাহীনূর পাশা। এর মধ্যে সৈয়দ আলী আহমদ ব্রিটেনে গেছেন। তার সমর্থকরা জানান, তিনি আত্মীয়-স্বজনদের কাছে দোয়া নিতে ও নির্বাচনী ক্যাম্পেইন করতেই ব্রিটেন গেছেন।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ