দুর্বল হয়েছে তিতলি, বৃষ্টি ঝরবে আজও

ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য অন্ধ্র প্রদেশ ও উড়িষ্যার মাঝামাঝি এলাকায় আঘাত হানা শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‌‘তিতলি’ শুক্রবার রাতে দুর্বল হয়ে পড়েছে। বৃষ্টি ঝরিয়ে এটি আরো দুর্বল হয়ে বাংলাদেশের দিকে আসবে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি বলছে, গোপালপুরে আঘাত হানার সময় ঘূর্ণিঝড় তিতলির গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১২৬ কিলোমিটার। এতে কোনো কোনো এলাকার গাছপালা ও বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে পড়েছে। ইতিমধ্যে উপকূলবর্তী পাঁচ জেলা থেকে তিন লাখ মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় তিতলির কারণে বন্ধ রয়েছে গোপালপুর ও ব্রহ্মপুরের পরিবহন সেবা। অন্ধ্রপ্রদেশ এবং ওড়িশায় বিমান এবং রেল চলাচল ব্যাহত হয়েছে। ভুবনেশ্বর থেকে উড্ডয়নের অপেক্ষায় থাকা পাঁচটি বিমানের যাত্রা স্থগিত করা হয়েছে।

ওডিশার মুখ্যমন্ত্রী নাভিন পাটনায়েক ঘূর্ণিঝড়ের কবলে আটকে পড়াদের দ্রুত উদ্ধারের নির্দেশ দিয়েছেন কালেক্টরদের। বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে তা মোকাবিলায় সব ধরণের ব্যবস্থা রয়েছে বলে সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে। এরিমধ্যে উদ্ধার কাজে নেমে পড়েছে ভারতের জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনী।

এদিকে আবহাওয়া অধিদফতরের সহকারী আবহাওয়াবিদ মো. মোজাম্মেল হোসেন জানান, উড়িষ্যার আঘাত হানার পর দুর্বল হয়ে পড়েছে তিতলি। বাংলাদেশের ওপর দিয়ে প্রবাহের সময়ে উপকূলসহ বেশ কিছু এলাকায় বৃষ্টি ঘটাবে। এ কারণে চট্টগ্রাম, মোংলা, পায়রা সমুদ্রবন্দর ও কক্সবাজারে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ