দুইদিনের জন্য কলকাতায় গিয়ে ফেঁসে গেছি: অঞ্জু ঘোষ

দুইদিনের জন্য কলকাতায় গিয়ে ফেঁসে গেছি: অঞ্জু ঘোষ

দীর্ঘদিন পর দেশে ফিরেছেন এক সময়ের সাড়া জাগানো ‘বেদের মেয়ে জোসনা’খ্যাত চিত্রনায়িকা অঞ্জু ঘোষ। প্রায় ২২ বছর পর দেশের মাটিতে পা রেখেছেন এ অভিনেত্রী।

রোববার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিএফডিসিতে (বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন) অঞ্জু ঘোষকে বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে অঞ্জু ঘোষ বলেন, মাতৃভূমিতে পা রেখে মনে হচ্ছে তীর্থে পা রেখেছি। আপনারা আমার জন্য আশীর্বাদ করবেন। এটা আমার দেশ, আমার নিঃশ্বাস। এখান থেকে নিঃশ্বাস নিয়ে সেখানে (কলকাতায়) এতদিন বেঁচে আছি। আমরা বাঙাল, কথাটা সেখানে আমাদের অনেক শুনতে হয়। শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে আজীবন সদস্যপত্র অঞ্জু ঘোষের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছেদীর্ঘদিন পর দেশে আসা প্রসঙ্গে এই অভিনেত্রী বলেন, আমার কারও উপর ক্ষোভ নেই। ওখানে (কলকাতায়) দুইদিনের জন্য গিয়েছিলাম। মা থাকতেন। দুইদিনের জন্য গিয়ে ফেঁসে গেছি। আর বের হতে পারছি না। এরপর সেখানে সিনেমার পর সিনেমা করতে লাগলাম।

এতো বছর পরো আপনারা আমাকে মনে রেখেছেন, ভাবতে খুব অবাক লাগছে। এখানে আসতে আমার অনেক অসুবিধা হয়েছে। অনেক আজেবাজে জিনিস আমার কানে এসেছে। আমি কোনো বাধা মানি না। পৃথিবীর কোনো বাধা আমাকে আটকে রাখতে পারেনি-যোগ করেন এই অভিনেত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন-চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন, শিল্পী সমিতির সভাপতি ও অভিনেতা মিশা সওদাগর, সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান, খল-অভিনেতা আহমেদ শরীফ, চিত্রনায়িকা অঞ্জনা, অভিনেতা সুব্রতসহ সিনেমা সংশ্লিষ্ট অনেকে।ইলিয়াস কাঞ্চনের সঙ্গে অঞ্জু ঘোষ চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের সঙ্গে অঞ্জু বহু সিনেমায় অভিনয় করেছেন। তাকে নিয়ে অঞ্জু বলেন, কাঞ্চনের সঙ্গে আমার গড গিফটেড একটা ব্যাপার আছে। কখনও ও (ইলিয়াস কাঞ্চন) আমাকে ছাড়বে না। আর আমিও তাকে ছাড়ছি না।

অনুষ্ঠান শেষে শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে অঞ্জুর হাতে ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয় এবং উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়। সোমবার (১০ সেপ্টেম্বর) তিনি আবার কলকাতায় ফিরে যাবেন।

১৯৮২ সালে এফ কবীর চৌধুরী পরিচালিত ‘সওদাগর’ সিনেমার মাধ্যমে অঞ্জু ঘোষের সিনেমায় অভিষেক ঘটে। তার অভিনীত সিনেমার তালিকায় রয়েছে-‘বড় ভালো লোক ছিলো’, ‘ধন দৌলত’, ‘রক্তের বন্দি’, ‘আওলাদ’, ‘চন্দনা ডাকু’, ‘মর্যাদা’, ‘নিয়ত’, ‘দায়ী কে’, ‘কুসুমপুরের কদম আলী’, ‘অবরোধ’, ‘শিকার’, ‘রঙ্গিন নবাব সিরাজউদ্দৌলা’, ‘চোর-ডাকাত-পুলিশ’, ‘শঙ্খমালা’, ‘আদেশ’ ইত্যাদি।

মানবকণ্ঠ/এসএ