দালালদের দৌরাত্ম্য

স্বাস্থ্যসেবা ক্রমেই যেন দালালদের হাতে জিম্মি হয়ে পড়ছে। সরকারি হাসপাতাল থেকে রোগী নিয়ে ব্যক্তিমালিকানাধীন ক্লিনিকে ভর্তি করা থেকে শুরু করে রোগীর বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ডায়াগনস্টিক সেন্টারে যেতে হরহামেশাই প্রভাবিত করছে দালালরা। সরকারি হাসপাতালে এই চিকিৎসা নেই, অল্প খরচে ক্লিনিকে ভালো চিকিৎসা হবে, সরকারি হাসপাতালে রোগ নির্ণয়ের ব্যবস্থা নেই, অল্প খরচে অন্য জায়গায় সঠিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা হবে। চিকিৎসা নিতে আসা রোগী ও তাদের স্বজনরা প্রতিনিয়তই এভাবে দালালদের খপ্পরে পড়ছেন। তবুও এসব দেখার যেন কেউ নেই। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জরুরি পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন হয়। হাসপাতালে প্রতিটি পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকলেও দালালরা তাকে বাইরের রোগনির্ণয় কেন্দ্র থেকে পরীক্ষার জন্য প্রভাবিত করেন। উদ্বিগ্ন স্বজনদের অনেকেই দালালদের কথায় বিশ্বাস করে সরকারি হাসপাতাল ত্যাগ করেন এবং দালালদের দেখানো জায়গায় চিকিৎসা নেন।
অনুসন্ধানে জানা গেছে, দালালরা প্রথমে নিজেদের হাসপাতালের কর্মী হিসেবে পরিচয় দেয়। হাসপাতালের অব্যবস্থাপনার কথা বলে রোগী ও রোগীর স্বজনদের উন্নত চিকিৎসার প্রলোভন দেখিয়ে বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে নিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীদের হাসপাতালের চিকিৎসা যন্ত্রপাতি অচল ও নি¤œমানের দাবি করে বেসরকারি রোগনির্ণয় কেন্দ্রে নিয়ে যায়। অভিযোগ রয়েছে, হাসপাতালের বেশ কয়েকজন চিকিৎসক, নার্স ও কর্মচারীদের সঙ্গেও দালালদের সখ্য রয়েছে।