সৌদি সাংবাদিক নিখোঁজ

তুরস্ক এবং যুক্তরাষ্ট্রের কাছে রয়েছে হত্যার প্রমাণ


তুরস্ক এবং যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের কাছে নিখোঁজ সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার প্রমাণ রয়েছে। সংবাদ মাধ্যম দ্যা ওয়াশিংটন পোস্টকে এমটি জানিয়েছে তুরস্ক এবং যুক্তরাষ্ট্রের কিছু কর্মকর্তা। দ্যা ওয়াশিংটন পোস্টের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

যুক্তরাষ্ট্র এবং তুরস্কের কর্মকর্তারা সংবাদমাধ্যম দ্যা ওয়াশিংটন পোস্টকে বলেন, আমাদের কাছে কিছু অডিও এবং ভিডিও রেকর্ডিং রয়েছে যেগুলো দিয়ে প্রমানিত হয় যে  খাশোগিকে সৌদি দূতাবাসের ভেতর নির্যাতন করা হয়েছে এবং পরে তাকে হত্যা করা হয়েছে। ভিডিওটির সম্পর্কে তারা জানায়, ভিডিওটিতে দেখা যায় অক্টোবর ২ তারিখে সৌদি দূতাবাসে প্রবেশের পরপরই জামাল খাগোশিকে অপহরণ করা হয়। পরে তাকে হত্যা করা তার মরদেহ টুকরো টুকরো করে ফেলা হয়। আর রেকর্ডকৃত অডিওটি ছিল ভীষণ লোমহর্ষক।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা বলেন, জামাল খাশোগি সৌদি দূতাবাসে প্রবেশের পর তার সাথে কি ঘটনা ঘটেছে তা পুরোটি ওই অডিও রেকর্ডিংয়ে বোঝা যায়। আপনি ওই রেকর্ডিংয়ে জামাল খাগোশির কণ্ঠ শুনতে পারবেন এবং তার সাথে কিছু মানুষ আরবিতে কথা বলছে সেটিও শুনতে পারবেন। আরো শুনতে পারবেন কিভাবে তাকে প্রশ্ন করা হয়েছে , নির্যাতন করা হয়েছে এবং হত্যা করা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেকজন কর্মকর্তা জানায়, ওই রেকর্ডিংয়ে খাশোগিকে মারধরের আওয়াজ শুনতে পারবেন। তবে যুক্তরাষ্ট্র এবং তুরস্কের কর্মকর্তারা কিভাবে এই রেকর্ডগুলো সংগ্রহ করলো তা এখনো স্পষ্ট নয়।

প্রসঙ্গত, গত ২ অক্টোবর কাগজপত্র জমা দেয়ার জন্য তুরস্কের সৌদি দূতাবাসে যান সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি। তবে সৌদি সরকারের কট্টর সমালোচক এই সাংবাদিক সৌদি দূতাবাসে প্রবেশের পর আর ফিরে আসেননি।

মানবকণ্ঠ/এআর