তারুণ্য ধরে রাখে বাঁধাকপি

তারুণ্য ধরে রাখে বাঁধাকপি

সবজি হিসেবে বাঁধাকপি যথেষ্ট জনপ্রিয়। আমাদের দেশে শুধুমাত্র সবুজ বাঁধাকপি পাওয়া গেলেও পৃথিবীর অন্যান্য দেশে এর কয়েকটি ধরন দেখতে পাওয়া যায়। যেমন-লাল, সাদা, গাঢ় সবুজ, হালকা সবুজ, বেগুনি ইত্যাদি রঙের বাঁধাকপি। বাঁধাকপি পুষ্টিগুণে ভরপুর একটি সবজি। বাঁধাকপিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন। শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় প্রায় সব ধরনের ভিটামিনই আছে। এতে রয়েছে রিবোফ্লাভিন, প্যান্টোথেনিক অ্যাসিড, থায়ামিন, ভিটামিন বি৬, ভিটামিন সি ও কে। এছাড়া ক্যালসিয়াম, আয়রন, সালফার, ফসফরাসসহ আছে প্রয়োজনীয় সব খাদ্য উপাদান। পুষ্টিবিদদের মতে, বাঁধাকপি খেলে শরীরে নানা ধরনের উপকার পাওয়া যায়।

বাঁধাকপিতে থাকা ভিটামিনগুলো শরীরের রক্তনালিগুলোকে সবল ও শক্তিশালী রাখে। এ জন্য মুখে বয়সের ছাপ পড়ে খুব ধীরে। বাঁধাকপি তারুণ্য ধরে রাখে। বাঁধাকপিতে আছে টারটারিক অ্যাসিড যা ওজন কমায়। চিনি ও শর্করা রূপান্তর হয়ে শরীরে যে চর্বি জমে, টারটারিক অ্যাসিড এই চর্বি জমতে বাধা দেয়। তাই প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় বাঁধাকপি রাখুন। যাদের মাঝেমধ্যেই মাথা ধরে, তারা প্রতিদিন অন্তত একবেলা বাঁধাকপি খাদ্য তালিকায় রাখুন। এটি মাথাব্যথা দূর করতে সহায়তা করবে। বাঁধাকপির আছে অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি গুণ। যা হাড় ও হাড়ের সংযোগস্থলের ব্যথা প্রশমনে সহায়ক ভূমিকা রাখে। বাঁধাকপিতে আছে প্রচুর আয়রন। তাই যাদের রক্তস্বল্পতা আছে, বাধাকপি তার জন্য অবশ্য খাদ্য। বাঁধাকপি সব ধরনের ত্বকের সুরক্ষা দেয়। একদিকে যেমন ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়, তেমনি ত্বকের দাগ দূর করতেও সাহায্য করে।

বাঁধাকপি আলসার নিরাময়ে উপকারী। পাকস্থলীর আলসার ও পেপটিক আলসার প্রতিরোধে বাঁধাকপি বিশেষভাবে সহায়ক। স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে, বাঁধাকপির রস আলসারের জন্য সবচেয়ে উপকারী প্রাকৃতিক ওষুধ। বাঁধাকপি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে। সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে যে, যারা নিয়মিত বাঁধাকপি খান তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি। বাঁধাকপিতে উপস্থিত ভিটামিন সি ও মিনারেল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সহায়তা করে। বিশেষজ্ঞরা জানান, বাঁধাকপির অনেক গুণ আছে। তবে এটি পরিপাকে অসুবিধা হলে গ্যাসট্রাইটিস বেড়ে যায়। বাঁধাকপির কারণে পেটফাঁপা ভাব হতে পারে। যাদের এ ধরনের সমস্যা আছে তাদের জেনে বুঝে বাঁধাকপি খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.