তফসিল ঘোষণার আগেই নির্বাচনমুখী প্রশাসন

আগামী অক্টোবরে একাদশ জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে। কিন্তু এর আগেই নির্বাচনমুখী হয়ে পড়ছে প্রশাসন। এ কারণে প্রশাসন ও পুলিশের মাঠ ও উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্বাচনের আগ পর্যন্ত বিদেশ ছুটি বন্ধ করেছে সরকার। নির্বাচন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগের কর্মকর্তাদের এ ব্যাপারে অলিখিত নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আর পুলিশের বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগ থেকে বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের বহির্গমন ছুটি বন্ধের আদেশ জারি করা হয়েছে। সচিবালয় ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একাধিক সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, দেশে ডিসেম্বরের শেষদিকে অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় নির্বাচনকে অবাধ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিদেশ ছুটি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একইসঙ্গে অতি জরুরি ছাড়া উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের বিদেশ সফরও নিরুৎসাহিত করতে বলা হয়েছে। আগামী অক্টোবর থেকে নির্বাচনের আগ পর্যন্ত বহির্বাংলাদেশ ছুটি বন্ধের পাশাপাশি সরকারি সফর সীমিত হচ্ছে। আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত এ অবস্থা বহাল থাকবে। এ কারণে অনেক কর্মকর্তাকে বিদেশ সফরের সিডিউল বাতিল করতে হচ্ছে। নির্বাচন অনুষ্ঠানের ৩ মাসের বেশি সময় হাতে থাকতেই নির্বাচনী আবহে ঢুকে পড়েছে প্রশাসন।

এদিকে জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকার ডিসি ও এসপিসহ মাঠ প্রশাসনগুলোতে ব্যাপক রদবদল করছে। ৬৪ জেলার মধ্যে ডিসি পদে দ্বিতীয় দফায় ২৪ জনকে রদবদল করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৮ জেলায় নতুন ডিসি গেছেন। আরো ১২ জন নতুন ডিসির একটি প্রজ্ঞাপন যে কোনো সময় জারি হতে পারে। একইভাবে এসপি ও এসপি পদমর্যাদার ৩০ কর্মকর্তাকে বদল করা হয়েছে। এ ছাড়া ২ শতাধিক থানার ওসি রদবদল করা হয়েছে।

আগামী নির্বাচন আয়োজনে দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুষ্ঠু রাখতে মাঠ প্রশাসনের কর্মকর্তারা কঠিন চ্যালেঞ্জের মধ্যে রয়েছেন। সে কারণে বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক (ডিসি), ডিআইজি, পুলিশ সুপারসহ মাঠের নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের বিদেশ ছুটি বন্ধ হচ্ছে। এই সময়ে উপসচিব ও যুগ্ম সচিব পর্যায়ের কর্মকর্তাদের ছুটি বন্ধের অলিখিত নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয় ও বিভাগ থেকে কর্মকর্তাদের বিদেশে যাওয়ার ছাড়পত্র দেয়া হচ্ছে না। আর অতিরিক্ত সচিবদের বিদেশ ছুটির অনুমোদনের ফাইল প্রধানমন্ত্রীর পর্যায়ে গড়ায়। তারাও এ কড়াকড়ি আরোপের মধ্যে পড়ছেন বলে জানা গেছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব ফয়েজ আহমেদ এ প্রসঙ্গে মানবকণ্ঠকে বলেন, নির্বাচনের আগে কর্মকর্তাদের বিদেশ সফরে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনো নিষেধাজ্ঞা জারি করিনি। তবে যারা (ডিসি, ইউএনও) নির্বাচন করবেন তাদের এই মুহূর্তে বিদেশ যাওয়ার (ছুটি বা সফর) ব্যাপারে অনুমতি দেয়া যাবে না।

তিনি বলেন, এখনো বিদেশ সফর বন্ধ করা হয়নি। জেলা প্রশাসকদের একটি টিম বিদেশে যাচ্ছে তো। এরপর নির্বাচনের আগ পর্যন্ত কোনো টিম যাবে না।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, জাতীয় নির্বাচনের কারণে মাঠ পর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের বহির্বাংলাদেশ ছুটি বন্ধের আদেশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা বিভাগ আগস্টে জারি করেছে। এ ছাড়া মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারী পর্যায়ে বিদেশ ছুটির ব্যাপারে অলিখিত নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা মানবকণ্ঠকে বলেন, নির্বাচনের আগে বিদেশ সফর বন্ধের অলিখিত নির্দেশনার মধ্যে পড়েছেন তিনি। সেজন্য তাকে ভিয়েতনাম সফর বাতিল করতে হয়েছে। অলিখিত এ নিষেধাজ্ঞা সরকারের সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগে কার্যকর হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ