ঢাকা ও কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

ঢাকা ও কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

ঢাকা ও কক্সবাজারে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চারজন নিহত হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে ঢাকার রায়ের বাজার এলাকায় দুই জন আর কক্সবাজারের উখিয়ায় দুই জন র‌্যাবের গুলিতে নিহত হন।

র‌্যাবের ভাষ্য, ঢাকার রায়ের বাজার এলাকায় নিহত দুই জন ‘ডাকাত’ আর কক্সবাজারের উখিয়ায় নিহত দুই জন ‌‘মাদক চোরাকারবারে’ জড়িত ছিল।

ঢাকা :
র‌্যাব সদরদপ্তরের সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমান বলেন, মঙ্গলবার ভোরে রায়ের বাজার বুদ্ধিজীবী কবরস্থানের পেছনে র‌্যাব-২ এর টহল দলের সঙ্গে ‘ডাকাত দলের’ গোলাগুলিতে অজ্ঞাতপরিচয় দুইজন নিহত হয়।

তিনি বলেন, ডাকাত দলের সদস্যরা বুদ্ধিজীবী কবরস্থানের পেছনে অবস্থান করছিল। র‌্যাবের টহল দল সেখানে গেলে তারা গুলি ছোড়ে। র‌্যাব তখন পাল্টা গুলি চালালে দুই জন আহত হয়। পরে তাদের গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুইজনকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে তিনটি পিস্তল, গুলি, ছুরি, চাপাতি ও ডাকাতিতে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে আনুমানিক ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সী দুজনকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণ করেন। নিহত দুজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

কক্সবাজার:
কক্সবাজারের উখিয়ায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‌‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই জন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড এলাকার আব্দুস সামাদ (২৭) এবং যশোরের অভয়নগর এলাকার মো. আবু হানিফ (৩০)।

র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মো. মেহেদী হাসান বলেন, মঙ্গলবার ভোর রাতে শহীদ এটিএম জাফর আলম আরাকান সড়কের মরিচ্যা বাজার এলাকায় গোলাগুলির ওই ঘটনা ঘটে।

তিনি বলেন, মরিচ্যা বাজার এলাকায় র‌্যাবের অস্থায়ী চেকপোস্টে গাড়ি তল্লাশি করা হচ্ছিল। এ সময় টেকনাফের দিক থেকে আসা একটি ট্রাক চেকপোস্টে না থেমে র‌্যাব সদস্যদের দিকে গুলি করে পালানোর চেষ্টা করে। র‌্যাব সদস্যরাও তখন আত্মরক্ষার জন্য পাল্টা গুলি চালায়। তাতে ট্রাকে থাকা দুই ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। পরে ওই ট্রাকে তল্লাশি করে ১ লাখ ৩০ হাজার ইয়াবা, একটি বিদেশি পিস্তল, একটি দেশে তৈরি বন্দুক, আট রাউন্ড গুলি পাওয়া যায়।

মেজর মো. মেহেদী হাসান বলেন, নিহত দুজনেই ‘চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী’ এবং তাদের বিরুদ্ধে মাদক আইনের একাধিক মামলা রয়েছে। নিহতদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এসএস