ডাক্তারদের কাছে রোগীর প্রত্যাশা

ডাক্তারদের কাছে রোগীর প্রত্যাশা বেশি কিছু নয়। তারা চায় একটু ভালো ব্যবহার আর ভালো সেবা। চিকিৎসাসেবা পেশায় যারা আসেন তাদের কাছ থেকে সততা, দায়িত্বশীলতা, মহানুভবতা, দয়াশীলতা, নীতি-নৈতিকতা, জনকল্যাণ ইত্যাদি অত্যাবশ্যকীয় মানবিক গুণাবলি অনেক বেশি প্রত্যাশিত রোগীর। চিকিৎসাসেবা মহৎ একটি পেশা। সদিচ্ছা থাকলে এ পেশায় যে পরিমাণ জনসেবার সুযোগ পাওয়া যায় তা অন্য কোনো পেশায় সম্ভব নয়। চিকিৎসক হলেন এক ধরনের স্বাস্থ্যসেবা প্রদায়ক, যাদের পেশা হলো শারীরিক বা মানসিক রোগ, আঘাত বা বিকারের নিরীক্ষণ, নির্ণয় ও নিরাময়ের দ্বারা মানুষের স্বাস্থ্য বজায় রাখা বা পুনর্বহাল করা। তবুও আজকাল ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে জনগণের যেন ভীষণ ভয়। নিতান্তই ঠেকায় না পড়লে কেউ হাসপাতালমুখী হয় না। কারণ স্বেচ্ছাচারিতাসহ ডাক্তারদের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে ভূরি ভূরি। অনেক ডাক্তারকে ওষুধ কোম্পানির এজেন্ট বা ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর বললেও অত্যুক্তি হবে না। সংশ্লিষ্ট কোম্পানির স্বার্থরক্ষাই যেন তার কাছে মুখ্য বিষয়। বিনিময়ে মেলে অনেক অনৈতিক সুবিধা আর বিবিধ উপঢৌকন। বর্তমানে কিছু নামি-দামি ডাক্তারের পরিস্থিতি যেন কবি হোসনে আরার সফদার ডাক্তারের মতোই! আবার কিছু চিকিৎসক আছেন স্যাম্পল হিসেবে দেয়া কোম্পানিগুলোর ওষুধ রোগীকে দিয়ে দিচ্ছেন ফ্রিতে। আর এ ধরনের ডাক্তারের কারণেই এখনো রোগীরা আশাবাদী। পাশাপাশি দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থায় ভালো কিছু হবে বলে জনগণ বিশ্বাস রাখতে চাচ্ছেন।