টেকনাফে পৃথক অভিযানে ২ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার

টেকনাফ (কক্সবাজার) সংবাদদাতা :
টেকনাফে কোস্টগার্ড ও বিজিবি পৃথক অভিযান চালিয়ে ২ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে। বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের সহকারী পরিচালক (গোয়েন্দাা) লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মারুফ জানান, ১৮ সেপ্টেম্বর রাত ১১টার সময় বাংলাদেশ কোস্টগার্ড বাহিনী পূর্ব জোনের অধীনস্থ সিজি স্টেশন টেকনাফ কর্তৃক একটি দল বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। উক্ত অভিযানে টেকনাফ পৌরসভার জালিয়াপাড়া সাবরাং এলাকায় ইয়াবা পাচারের খবর পেয়ে কোস্টগার্ড সদস্যরা একটি সন্দেহজনক বোটকে তল্লাশির উদ্দেশ্যে থামার সংকেত দিলে উক্ত বোটে থাকা লোকজন একটি বড় প্লাস্টিকের বস্তা পানিতে ফেলে দ্রুত মিয়ানমারের সীমানার দিকে পালিয়ে যায়। পরে ভাসমান অবস্থায় প্লাস্টিকের বস্তাটি উদ্ধার করা হয়। বস্তাটি খুলে গণনা করে ১ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। অভিযানে কোনো চোরাকারবারীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। জব্দকৃত ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ৭ কোটি ৫০ হাজার টাকা। জব্দকৃত ইয়াবা টেকনাফ থানায় হস্তান্তর প্রক্রিয়াধীন চলমান রয়েছে।
অপরদিকে, একই দিনে ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ খুরের মুখ অস্থায়ী চেকপোস্টে কর্মরত নায়েক মো. রকিবুল হাসানের নেতৃত্বে একটি টহল দল মোটরসাইকেলযোগে নয়াপাড়া এলাকায় পৌঁছার পর কিছু দূরে দু’ব্যক্তিকে দেখতে পেয়ে দাঁড়ানোর জন্য সংকেত দেয়। তারা সংকেত না মেনে রাস্তা থেকে নেমে পার্শ্ববর্তী গ্রামের দিকে চলে যাওয়ার চেষ্টা করলে টহল দল তাদের পিছু ধাওয়া করে। পাচারকারীরা তাদের হাতে থাকা ব্যাগটি ফেলে গ্রামের ভেতর পালিয়ে যায়। ফেলে যাওয়া প্যাকেটটি খুলে গণনা করে ৫০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ করা হয়। জব্দকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে, যা পরে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।