টিপু সুলতানের তলোয়ার বন্দুক মিলল চিলেকোঠায়

টিপু সুলতানের তলোয়ার বন্দুক মিলল চিলেকোঠায়

টিপু সুলতানের তলোয়ার ও বন্দুকের খোঁজে হন্যে হয়ে ছুটেছেন বহু প্রত্নতত্ত্ববিদ। কিন্তু কোথাও পাওয়া যায়নি। অবশেষে তারা হাল ছেড়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু সেই মূল্যবান সম্পদ এতদিন অযত্বে পড়েছিল ব্রিটিশ যোদ্ধা থমাস হার্টের বাড়ির চিলেকোঠায়। সম্প্রতি এটি খুঁজে পেয়েছেন তার উত্তরসূরিরা। কাগজে পোড়ানো ছিল এগুলো।

ইতিহাসবিদদের মতে, ১৭৯৮-৯৯ সালে হয়েছিল মহীশূরের চতুর্থ যুদ্ধ। সেই যুদ্ধে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির কাছে পরাজিত হন টিপু সুলতান। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির হয়ে সেই যুদ্ধে লড়াই করেছিলেন মেজর থমাস হার্ট। সম্প্রতি থমাস হার্টের উত্তরসূরিরা চিলেকোঠার ঘর পরিষ্কার করার সময় দেখতে পান ধুলোভর্তি খবরের কাগজের মধ্যে কী যেন রাখা আছে। সেগুলি নামাতেই তাদের চক্ষু চড়কগাছ। সেই কাগজের মধ্যে লুকানো ছিল বাঘছাপওয়ালা বন্দুক ও স্বর্ণখচিত তলোয়ার। বাড়ির ছাদ থেকে হঠাত্ এই জিনিস পেয়ে হকচকিয়ে যায় ওই ব্রিটিশ পরিবার।

জানা গেছে, ওই বন্দুকটি টিপু সুলতানের। আর ওই তলোয়ার টিপু সুলতানের বাবা হায়দার আলীর। চতুর্থ মহীশূর যুদ্ধে পরাজয়ের পর থমাস হার্ট ওই জিনিসগুলো প্রাসাদ থেকে নিয়ে চলে গিয়েছিলেন ইংল্যান্ডে। তারপর সেগুলোকে রেখে দিয়েছিলেন নিজের বাড়িতে। ২২০ বছর পর সেগুলো খুঁজে পেলেন থমাসের উত্তরসূরিরা। এ মাসের শেষের দিকে নিলামে উঠবে টিপু সুলতানের ওই বন্দুক ও তলোয়ার। অ্যাটর্নি ক্রিব লিমিটেড নামে এক নিলাম সংস্থার কর্ণধার বলেছেন, ‘এটি একটি অভাবনীয় আবিষ্কার। ২২০ বছর ধরে এই প্রত্নতাত্ত্বিক সামগ্রীগুলো অবহেলায় পড়েছিল।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.