জিততেই আজ মাঠে নামবে টাইগাররা

ক্রীড়া ডেস্ক :
জিতলে ফাইনাল, হারলে ধরতে হবে দেশে ফেরার বিমান। এক কথায় এশিয়া কাপে আজকের ম্যাচটি বাংলাদেশের জন্য অলিখিত সেমিফাইনাল। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে এমন সহজ সমীকরণের কঠিন ম্যাচে মাশরাফি বিন মর্তুজাদের প্রতিপক্ষ ‘আনপ্রেডিকটেবল’ পাকিস্তান। যা জয়ের লক্ষ্য নিয়েই আজ মাঠে নামবে টাইগাররাÑ মঙ্গলবার বাংলাদেশের প্রধান কোচ স্টিভ রোডস স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিলেন সেই কথা।
আরব আমিরাতে সুপার ফোরে পাকিস্তানের শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি। প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জিতেছে শেষ ওভারের রোমাঞ্চে। পরের খেলায় একচেটিয়া আধিপত্য বিস্তার করে সরফরাজ আহমেদদের ৯ উইকেটে উড়িয়ে দিয়েছে ভারত। তবে খেলায় ময়দানে হঠাৎ করেই জ্বলে ওঠার গুণটা ভালোই আছে পাকিস্তানের। তাতে দেশটির জাতীয় ক্রিকেট দলের গায়ে লেগেছে ‘আনপ্রেডিকটেবল’ তকমা।
তাই আজকের ম্যাচের আগে সেই বিষয়টি তুলে ধরেছেন রোডস, ‘তারা খুব শক্ত দল। পাশাপাশি আনপ্রেডিকটেবলও। আশাবাদী, আজ তাদের দিনটা বাজে হবে। কারণ যদি তাদের দিন খারাপ হয়, তবে ভালো খেলে আমরা জিততে পারব। যদিও আমরা জানি না, কীভাবে ঘুরে দাঁড়াবে তারা। এর নিয়ন্ত্রণও আমাদের হাতে নয়। তবে আমাদের করনীয় এবং কীভাবে খেলতে হবে তা আমরা জানি। আশা করি, এই বিষয়গুলো দিনটা আমাদের পক্ষে রাখবে।’
পাকিস্তানকে প্রতিপক্ষ হিসেবে সমীহ করলেও বাংলাদেশ কোচ জানালেন, জয়ের লক্ষ্য নিয়েই আজ মাঠে নামবেন মাশরাফিরা, ‘আমরা ভালো একটি সুযোগ পেয়েছি। তবে তার বিপদজনক দল। আমরাও কম নই। তারা এটা জানে। ভালো একটা লড়াই হতে চলেছে। আমরা পাকিস্তানকে হারানোর লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নামব। এই সেমিফাইনাল (অলিখিত) জিতে আমরা ভারতের বিপক্ষে ফাইনালের জমজমাট লড়াই দেখাতে চাই।’
গত রোববার আফগানদের হারিয়ে এশিয়া কাপে ফাইনালে ওঠার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখে বাংলাদেশ। কিন্তু ওই ম্যাচের টাইগারদের জয়ের অন্যতম দুই নায়ক মোস্তাফিজুর রহমান এবং ইমরুল কায়েসকে খোঁড়াতে দেখা গিয়েছে। দুবাইয়ে দলে সুযোগ পেয়েই ৭২ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলার শেষ মুহূর্তে পায়ের পেশিতে টান পড়ে ইমরুলের। আর দ্বিতীয় ইনিংসের শেষ ওভারে বাংলাদেশকে জেতানো পেসার ফিজকে কয়েকবার দ্বারস্থ হতে হয়েছিল ফিজিওর।
তবে মোস্তাফিজ-ইমরুল সুস্থ আছেন- আরব আমিরাত থেকে এমন বার্তাই ভক্তদের জন্য প্রেরণ করেছেন রোডস, ‘ফিজ খুঁড়িয়ে চলছিল এবং ইমরুলেরও একই দশা হয়েছিল। তবে এই মুহূর্তে তারা ভালো আছে। ছোট কিছু সমস্যা হয়েছিল ওইদিন (রোববার)। এটা শুধু বাংলাদেশের সঙ্গেই নয়, প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের সঙ্গেও হয়েছিল। আসলে ওমন আবহাওয়ায় (গরম) খেলাটা ছেলেদের জন্য সহজ কাজ নয়।’
তাই পাকিস্তানের ম্যাচের আগে অনুশীলনে কিছুটা সতর্ক ছিলেন টাইগার কোচ, ‘গতকাল (সোমবার) ছয় খেলোয়াড় বসে ছিল এবং যারা চেয়েছে তারা অনুশীলন করেছে। তবে গরমের কারণে মাঝপথে স্টাফসহ প্রত্যেকেরই বিশ্রামের প্রয়োজন ছিল। আমরা একটি দল, একটি স্কোয়াড এবং একে অন্যের জন্য কিছু করতে হবে। এই বিষয় মাথায় রেখেই ছেলেরা অনুশীলন সেরে নিয়েছে।’
এদিকে খেলা শুরু হওয়ার আগে প্রতিপক্ষকে নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ করছেন রোডস। খুঁজে পেয়েছেন ইতিবাচক দিকও। তার মতে, আবুধাবির সেøা উইকেটে তেমন সুবিধা পাবে না পাকিস্তানের পেসাররা, ‘আবুধাবির উইকেট বেশ সেøা যা পক্ষ নেবে না পেসারদের। যখন উইকেট সেøা থাকে, তখন পেসারদের খেলতে সমস্যা হয়। তাই তাদের পেস আক্রমণ ভালোভাবেই মোকাবিলা করতে পারবে আমাদের ব্যাটসম্যানরা, এমনটাই প্রত্যাশা করছি আমি।’
তাহলে বাংলাদেশ কি বিশেষ কোনো পরিবর্তন আনবে আজকের একাদশে? সাংবাদিকদের এমন জানতে চাওয়ার ইচ্ছটা অবশ্য পূরণ করতে পারেনি কোচ, ‘আজকের (মঙ্গলবার) অনুশীলন আপনারা দেখেছেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে প্রস্তুত আমাদের প্রত্যেক খেলোয়াড়। আমরা এখনো একাদশ নির্বাচন করতে পারিনি। ম্যাচের আগ মুহূর্তে অধিনায়ক এবং নির্বাচকদের সঙ্গে বসে একাদশ নিশ্চিত করব।’