জিজ্ঞাসাবাদে জীবন্ত সাপ ব্যবহার করে ক্ষমা চাইল পুলিশ !

জীবন্ত সাপ দেখিয়ে আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছে ইন্দোনেশিয়ান পুলিশ।দেশটির পাপুয়া এলাকায় ঘটা এ ঘটনায় জড়িত পুলিশদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথাও জানিয়েছে তারা। খবর রয়টার্সের।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, মোবাইল চুরির ঘটনায় আটক এক ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় ওই ব্যক্তির মুখের দিকে সাপ রাখা হয়। ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা যায় একজন পুলিশ অফিসার একজন ব্যক্তির মুখের সামনে সাপ  রেখে  রেখে প্রশ্ন করছে , কয়বার ফোন চুরি করেছিস? প্রতি উত্তরে আটক হওয়া লোক জবাব দেয়, মাত্র দুইবার।

ভিডিওটিতে একজনের কণ্ঠও শোনা যায়, যিনি আটক হওয়া ব্যক্তিকে বার বার চোখ খোলার আদেশ দিচ্ছিলেন এবং এক পর্যায়ে  সাপটিকে আটক হওয়া লোকের মুখে এবং তার পায়জামার ভেতরে রাখার কথা বলতেও শোনা যায়।

এ ঘটনায় একটি বিবৃতিতে জায়াউইজায়া পুলিশ প্রধান টন্নি আনান্দা সোয়াাদায়া ক্ষমা চেয়ে বলেন, তদন্তকারীরা তাদের কাজে পেশাদারী আচরণ করেনি।

সোয়াাদায়া আরো বলেন, ওই অফিসাররা তাদের নিজেদের উদ্যোগে স্বীকারোক্তি নেয়ার জন্য এই কাজ করেছে। তবে সাপটি বিষাক্ত ছিল না এবং সেটি পালিত ছিল । আমরা অভিযুক্ত পুলিশ অফিসারদের বিরুদ্ধে  কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছি। 

মানবকণ্ঠ/এআর

Leave a Reply

Your email address will not be published.