জিএমপি’র আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু

জিএমপি’র আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু

আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করল গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জেএমপি)। রোববার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জিএমপির উদ্বোধন করেন। এতে মহানগরের আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে একধাপ এগিয়ে গেল গাজীপুর।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উদ্বেধনী অনুষ্ঠান উপলক্ষে গাজীপুর জেলা পুলিশ লাইনস্ মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠান থেকে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার কয়েক হাজার মানুষ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি, নারী ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এমপি, জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান, গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ, মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতি উপস্থিত ছিলেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমানের সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলেন পোশাককর্মী লিপি আক্তার । উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে একটি বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা পুলিশ লাইনস্ থেকে বের হয়ে ঢাকা-গাজীপুর সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ উদ্বোধন উপলক্ষে গাজীপুর-চান্দনা চৌরাস্তা, জাগ্রত চৌরঙ্গী মোড় ও সড়ক দীপগুলো ডিজিটাল ব্যানার দিয়ে বর্ণাঢ্য সাজে সজ্জিত করা হয়েছে। ব্যানারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপির ছবি এবং পুলিশের নানা সেবার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

সিটি কর্পোরেশনের নলজানি এলাকাস্থ জিএমপির প্রধান কার্যালয়টিতে করা হয়েছে আলোকসজ্জা। এ ছাড়া সন্ধ্যায় পুলিশ লাইনস্ মাঠে আয়োজন করা হয়েছে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের। অনুষ্ঠানে দেশের খ্যাতনামা শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। সেখানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

জিএমপি’র থানাগুলো হলো- সদর থানা, বাসন থানা, কোনাবাড়ি থানা, কাশিমপুর থানা, গাছা থানা, পূবাইল থানা, টঙ্গী পূর্ব থানা এবং টঙ্গী পশ্চিম থানা।

মানবকণ্ঠ/এসএ