জাহালমকে নিয়ে চলচ্চিত্র-নাটক নির্মাণে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

জাহালমকে নিয়ে চলচ্চিত্র-নাটক নির্মাণে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা

টাঙ্গাইল জেলার জাহালমের জীবন কাহিনী নিয়ে চলচ্চিত্র, নাটক নির্মাণের উদ্যোগের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন হাইকোর্ট। বুধবার বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদারের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে জাহালমকে নিয়ে নাটক বা চলচ্চিত্র নির্মাণ কেন অবৈধ হবে না এই মর্মে রুল জারি করেছেন আদালত।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান।

আইনজীবী খুরশিদ আলম খান বলেন, জাহালমের মামলা হাইকোর্টে বিচারাধীন। এ অবস্থায় তার জীবন কাহিনী নিয়ে চলচ্চিত্র তৈরি করলে মামলাটির বিচার কাজে ও তদন্তে প্রভাব পড়তে পারে। এ কারণে মামলা নিষ্পতির আগে আমরা দুদকের পক্ষ থেকে চলচ্চিত্র তৈরির উদ্যোগের ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়েছিলাম। আদালত রুল নিষ্পত্তি হওয়া না পর্যন্ত জাহালমকে নিয়ে নাটক-চলচ্চিত্র বানানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ জাহালমকে নিয়ে সিনেমা তৈরির উদ্যোগ নিয়ে প্রতিবেদন একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয়।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, সোনালী ব্যাংকের সাড়ে ১৮ কোটি টাকা ঋণ জালিয়াতির মামলার আসামি হলেন আবু সালেক নামের একজন। কিন্তু নিরীহ পাটকল শ্রমিক জাহালমকে আবু সালেক হিসেবে চিহ্নিত করে ২৬টি মামলায় আসামি করা হয়। দুদকের মামলায় জাহালম গ্রেপ্তার হন ২০১৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি। তিন বছর কারাভোগ করে হাইকোর্টের নির্দেশে গত ৩ ফেব্রুয়ারি তিনি মুক্তি পান। টাঙ্গাইলের আলোচিত সেই জাহালমের জীবনের গল্প এবার পর্দায় আসছে।

জাহালমের জীবনের কষ্টের কাহিনি নিয়ে সিনেমা নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেন মারিয়া তুষার। ছবিতে জাহালমের চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল রিয়াজুল রিজুর।

গত ২৮ জানুয়ারি জাহালমকে নিয়ে পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অমিত দাশ গুপ্ত প্রতিবেদনটি নজরে আনলে গত ৩ ফেব্রুয়ারি শুনানি নিয়ে জাহালমকে ২৬টি মামলায় অব্যাহতি দিয়ে ওই দিনই মুক্তি দেয়ার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। সেদিনই তিনি মুক্তি পান।

মানবকবণ্ঠ/এসএস