জামায়াতের ২৫ নেতার নির্বাচন করতে বাধা নেই

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকে জামায়াতে ইসলামীর ২৫ নেতার নির্বাচন করতে বাধা নেই বলে মত দিয়েছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে জামায়াতের নির্বাচন করার পক্ষে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিদ্ধান্ত কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না,তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।চার সপ্তাহের মধ্যে এ রুল নিষ্পত্তি করতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি জে বিএম হাসান ও বিচারপতি খায়রুল আলমের হাইকোর্ট এ আদেশ দেন। জামায়াতে ইসলামীর ২৫ নেতার প্রার্থিতার বৈধতা নিয়ে করা রিটের শুনানি শেষে এ আদেশ দেন আদালত।

গত ২৪ ডিসেম্বর জামায়াতে ইসলামীর নেতাদের নির্বাচনে অংশগ্রহণের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে চার ব্যক্তির করা একটি আবেদন নামঞ্জুর করে নির্বাচন কমিশন।

বিএনপির মনোনয়নে ও স্বতন্ত্র হিসেবে প্রার্থী হওয়া ওই ২৫ জনের প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে করা আবেদনটি নামঞ্জুর করে নির্বাচন কমিশনের পাঠানো চিঠি কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি), নির্বাচন কমিশন সচিব, জামায়াতের ২৫ প্রার্থীসহ সংশ্লিষ্টদের চার সপ্তাহের মধ্যে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে জামায়াত নেতাদের পক্ষে শুনানি করেন রুহুল কুদ্দুস কাজল। নির্বাচন কমিশনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. ইয়াসিন খান। আর রিটকারীপক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী তানিয়া আমীর।

আদেশের পর নির্বাচন কমিশনের আইনজীবী সাংবাদিকদের বলেন, “রুল বিবেচনাধীন থাকা অবস্থায় ২৫ জনকে নির্বাচনের অযোগ্য ঘোষণার আবেদন করা হয়েছিল রিটে। আদালত সে নির্দেশনা দেয়নি। ফলে ২৫ প্রার্থীর নির্বাচন করতে বাধা নেই।

ঐক্যফ্রন্ট থেকে প্রার্থী হওয়া ২২ জনসহ ২৫ জামায়াত নেতা হলেন- ঢাকা-১৫ আসনে ডা. শফিকুর রহমান, সিরাজগঞ্জ-৪ রফিকুল ইসলাম খান, খুলনা-৬ আবুল কালাম আজাদ, কুমিল্লা-১১ সৈয়দ আবদুল্লাহ মোহাম্মদ তাহের, খুলনা-৫ মিয়া গোলাম পরোয়ার, কক্সবাজার-২ হামিদুর রহমান আযাদ, পাবনা-৩ আনোয়ারুল ইসলাম, পাবনা-৫ ইকবাল হোসাইন, যশোর-২ আবু সাঈদ মো. শাহাদাত হোসাইন, ঠাকুরগাঁও-২ আবদুল হাকিম, দিনাজপুর-১ আবু হানিফ, দিনাজপুর-৬ আনোয়ারুল ইসলাম, নীলফামারী-৩ আজিজুল ইসলাম, গাইবান্ধা-১ মাজেদুর রহমান, সাতক্ষীরা-২ মুহাদ্দিস আবদুল খালেক, সাতক্ষীরা-৪ গাজী নজরুল ইসলাম, পিরোজপুর-১ শামীম সাঈদী, নীলফামারী-২ মো. মনিরুজ্জামান, ঝিনাইদহ-৩ মতিয়ার রহমান, বাগেরহাট-৩ ওয়াদুল শেখ, বাগেরহাট-৪ আসনে আবদুল আলীম, চট্টগ্রাম-১৫ আসনে শামসুল ইসলাম।

স্বতন্ত্র থেকে প্রার্থী হওয়া ৩ জন হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ নুরুল ইসলাম বুলবুল, চট্টগ্রাম-১৬ জহিরুল ইসলাম, পাবনা-১ আসনে নাজিবুর রহমান মোমেন।

মানবকণ্ঠ/এএম