‘জামায়াতের চিহ্নিত নেতারা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবে না’

মাহবুব তালুকদার

নিবন্ধন বাতিল হওয়া দল জামায়াতের পরিচিত কেউ বা চিহ্নিত নেতারা স্বতন্ত্র বা অন্য কোনো দল থেকে প্রার্থী হয়ে আগামী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবে না বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার। তিনি বলেন, সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে জামায়াতের নিবন্ধন বাতিল করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ কারণে জামায়াত নেতারা দলীয়ভাবে নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না।

মঙ্গলবার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এক প্রশ্নের জবাবে মাহবুব তালুকদার এসব কথা বলেন। তবে এ বিষয়ে ইসি কোনো আইন করবে কি না, তা তিনি পরিষ্কার করেননি।

মাহবুব তালুকদার বলেন, স্বতন্ত্র হিসেবেও যদি জামায়াতের কেউ নির্বাচনে আসতে চায় তাহলে নির্বাচন কমিশনের মিটিংয়ে তাদেরকে ইন্ডিভিজুয়ালি তাদের বিষয়টা বিচার বিশ্লেষণ করে সিদ্ধান্ত নেবো। একজন একটা ধুয়া তুলে দিলো এটা জামায়াতের লোক, তাহলে সেটার বিষয়ে আমি কেমন করে বলব। কোনো অভিযোগ পেলে সেটি কমিশন আগে পর্যালোচনা করে দেখবে। জামায়াতের সবাইতো চিহ্নিত না। যারা চিহ্নিত তাদেরকে অবশ্যই নির্বাচনে গ্রহণ করা হবে না।

রংপুর সিটি কর্পোরেশন (রসিক) নির্বাচন সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য করতে হাই প্রোফাইল পর্যবেক্ষণ টিম গঠন করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এক্ষেত্রে স্বয়ং নির্বাচন কমিশনাররাই নির্বাচনী এলাকা পরিদর্শন করবেন। এমনকি জনসভাগুলোতেও তারা উপস্থিত থাকবেন।

তিনি বলেন, কোনো প্রার্থীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে কিংবা কেউ ইচ্ছাকৃত আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছে বলে প্রমাণ পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করা হবে।

মানবকণ্ঠ/এসএস