জাতীয় ঈদগাহে জামাত সকাল সাড়ে ৮টায়

শাওয়াল মাসের চাঁদ শুক্রবার দেখা গেলে শনিবার ঈদ, নতুবা রোববার। এরই মধ্যে ঈদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। রাজধানীতে ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন।

তবে, আবহাওয়া প্রতিকুল থাকলে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে জামাত হবে সকাল নয়টায়। বৃহস্পতিবার জাতীয় ঈদগাহ পরিদর্শনে এসে এ তথ্য জানান ডিএসসিসি মেয়র।

তিনি বলেন, প্রায় লক্ষাধিক লোকের জামাত আয়োজনে যাবতীয় প্রস্তুতির কাজ শেষ হয়েছে। এ ছাড়া মুসল্লিদের জন্য তিন স্তরের নিরাপত্তা বেষ্টিত থাকবে জাতীয় ঈদগাহে। মেয়র বলেন, মুসল্লিদের জন্য ওযুর ব্যবস্থা, পাবলিক টয়লেট ও জরুরি মেডিকেল সেবাসহ সব ব্যবস্থাই রাখা হয়েছে। ঈদের জামাতে লক্ষাধিক মুসল্লি যাতে নামাজ আদায় করতে পারেন আমরা সে ব্যবস্থা নিচ্ছি। এতে ৫ থেকে ৬ হাজার মহিলাদের নামাজ আদায়ের ব্যবস্থা থাকবে। আর এক সঙ্গে ১৪০ জন পুরুষ ও ৪০ জন নারী অযু করতে পারবেন। থাকবে খাবার পানির ব্যবস্থাও। একই সঙ্গে কেউ অসুস্থ হয়ে গেলে ঈদগাহে মেডিকেল টিম থাকবে। এ ছাড়া মাঠে বর্জপাত রোধক যন্ত্র থাকবে বলেও জানান মেয়র।

জানা গেছে, পবিত্র ঈদ উল ফিতরের নামাজের জন্য জাতীয় ঈদগাহ মাঠের প্রায় ৯৫ ভাগ প্রস্তুতি শেষ করেছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন। সাদা শুভ্র একটি কাপড়ের সাথে আরেকটির জোড়া লাগানো হচ্ছে। ঈদের বাঁকা চাঁদ আকাশে উঁকি দিলেই নামাজের জন্য তা বিছানো হবে পুরো মাঠে। এক মাসের সিয়াম সাধনা শেষে খুশির এই দিনটির শুরুটাই হবে। ঈদগাহ মাঠের জামাতে নামাজ আদায়ের মধ্য দিয়ে। তাই শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছেন শ্রমিকরা। প্যান্ডেল তৈরি কাজ শেষ হয়েছে অনেক আগেই। উঁচুনিচু জায়গাগুলি বালু ও মাটি দিয়ে সমান করা হয়েছে। গরমে স্বস্তি দিতে থাকছে প্রায় ৭’শ সিলিং ফ্যান। বৃষ্টির জন্য শামিয়ানার উপরে বসানো হয়েছে পানিরোধক ত্রিপল। এছাড়া বর্ষাকালে ঈদ হওয়ায় বজ্রপাতের কথা মাথায় রেখে বসানো হচ্ছে বজ্র প্রতিরোধকও।

প্রতিবছরের মতো এবারো জাতীয় ঈদগাহে নামাজে অংশ নেবেন রাষ্ট্রপতি মন্ত্রিপরিষদের সদস্যসহ সর্বস্তরের মানুষ। মুসল্লিদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে নেয়া হয়েছে তিন স্তরের নিরাপত্তা বলয়। পুরো মাঠে সিসি ক্যামেরা বসানোর কাজ প্রায় শেষের পথে। রাজধানীতে ঈদ-উল ফিতরের প্রায় ৫’শ টি জামাত হবে।

মানবকণ্ঠ/এএএম

Leave a Reply

Your email address will not be published.