ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করল বড়ভাই

ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করল বড়ভাই

পাবনার ঈশ্বরদীতে ছোটভাইকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে বড়ভাইয়ের বিরুদ্ধে। রোববার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে সাহাপুরের মালিথাপাড়ায় হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছে ।

এলাকাবাসী জানায়, সাহাপুর মালিথাপাড়ার ইউনুস আলী মালিথার মেঝ ছেলে লিখন মণ্ডল দশা (২৮) তার আপন ছোট ভাই খোকন হোসেন কটা মণ্ডলের (২৪) ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ও বাটাল দিয়ে কুপিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করে। পরে তাঁকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক খোকন মণ্ডলকে মৃত ঘোষণা করেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৪-৫ দিন আগে খোকন মণ্ডলের সঙ্গে তার ভাই লিখন মণ্ডলের স্ত্রী শারমিন খাতুনের পারিবারিক বিষয়াদি নিয়ে ঝগড়া বিবাদ হয়। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে শারমিন বাবার বাড়ি চলে যায়। যাওয়ার সময় শারমিন লিখন মণ্ডলকে বলে যায় এ বিষয়ে সুরাহা না করলে সে আর ফিরে আসবে না। এ ঘটনায় দুই ভাইয়ের মধ্যে ঝগড়া হয়। রোববার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে খোকন মণ্ডলের স্ত্রী রিনি খাতুন ঘুম থেকে উঠে ঘরের বাইরে বাথরুমে যান। এই সুযোগে লিখন মণ্ডল খোকনের ঘরে ঢুকে ঘুমন্ত অবস্থায় মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে হাতুড়ি ও বাটাল দিয়ে আঘাত করে ক্ষত-বিক্ষত করে। খোকনের চিৎকারে বাড়ির লোকজন ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঈশ্বরদী থানার এস আই আশরাফুল ইসলাম বলেন, পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীদের সাথে কথা বলেছি। অভিযুক্ত লিখন মণ্ডল পালিয়ে গেছে। তাকে আটক করতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এসএ