চিকিৎসা ব্যয়ের তুলনামূলক চিত্র

সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশে মাথাপিছু চিকিৎসা ব্যয় সর্বোচ্চ। ২০ বছরে চিকিৎসা সুবিধার জোগান বেড়েছে ৯৪ শতাংশ (বেসরকারি চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাগত দিক থেকে)। কিন্তু তাতে চিকিৎসা ব্যয় এক পয়সাও কমেনি, বরং ৫৭ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ৬৭ শতাংশ। অন্যদিকে সরকারের পক্ষ থেকে জনগণের জন্য চিকিৎসা ব্যয় না বেড়ে উল্টো ৩৭ শতাংশ থেকে কমে ২৩ শতাংশে এসে ঠেকেছে।
বাংলাদেশে চিকিৎসা ব্যায় উদ্বেগজনক হলেও প্রতিবেশী দেশ ভারতে চিকিৎসা করাতে গিয়ে সে দেশের একজন মানুষের মোট চিকিৎসা খরচের মধ্যে নিজ পকেট থেকে যায় ৬২ শতাংশ, পাকিস্তানে যায় ৫৬ শতাংশ, নেপালে ৪৭ শতাংশ, ভুটানে ২৫ শতাংশ ও মালদ্বীপে ১৮ শতাংশ। কিন্তু বাংলাদেশে একজন মানুষের মোট চিকিৎসা খরচের মধ্যে নিজ পকেট থেকে দিতে হয় ৬৭ শতাংশ। এর মধ্যে আবার ৭০ শতাংশই যায় ওষুধ কেনার পেছনে। বছর বছর এই খরচ বাড়ছেই। ২০১২ সালেও নিজ পকেট থেকে যেত ৬৩ শতাংশ। জানা যায়, শুধু বেসরকারি খাতেই নয়, সরকারি প্রতিষ্ঠানেও চিকিৎসা ব্যয় বেড়েছে।
সূত্র মতে, জোগান বা সুবিধা বাড়লে যেখানে ব্যয় কমার কথা সেখানে দেশে মাথাপিছু মোট চিকিৎসা ব্যয়ও বাড়ছে। ২০১২ সালে যেখানে মাথাপিছু মোট চিকিৎসা ব্যয় ছিল ২৭ মার্কিন ডলার, এখন তা উঠেছে ৩৭ ডলারে। – সূত্র : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়