চলতি বছরের শেষে বা আগামী বছরের প্রথমে নির্বাচন হবে: সিইসি

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ২০১৮ সালের শেষে অথবা ২০১৯ সালের শুরুতে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

শনিবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচনী কর্মকর্তা প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ এবং ইভিএম ব্যবহার বিষয়ে এক কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

সিইসি বলেন, আইনগত ভিত্তি পেলেই আগামী জাতীয় নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটির মেশিন বা ইভিএম ব্যবহার করা হবে। তবে তার আগে সেটি ত্রুটিমুক্ত কি না সেটা নিশ্চিত করতে হবে।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, ইভিএম অতিরিক্তভাবে চাপিয়ে দেয়া যাবে না। যতটুকু নিখুঁতভাবে ব্যবহার করা যাবে ততটুকুই ইভিএম ব্যবহার করা হবে।

সিইসি বলেন, ইভিএম ব্যবহার করলে ভোট গ্রহণ সহজ হবে, কষ্ট কমে যাবে এবং ভোট গণনা সহজ হবে। ভোটে কারচুপি হবে না। কোনো ধরনের ত্রুটি থাকলে ইভিএম ব্যবহার করা হবে না।

রাজনৈতিক দলের নেতাদের উদ্দেশে সিইসি বলেন, ইভিএম সম্পর্কে ভালোভাবে জানার পর যদি মন্তব্য করেন তাহলে ভালো হয়। আমাদের অবশ্যই আধুনিক প্রযুক্তির দিকে ধাবিত হতে হবে। নির্বাচনের ম্যানুয়াল পদ্ধতি থেকে আমাদের সরে আসতে হবে।

তিনি বলেন, ইভিএম নিয়ে ভোটারদের মাঝে সন্দেহ বা প্রশ্ন থাকতেই পারে। কিন্তু আমরা ভোটারদের মাঝে থাকা সেই সন্দেহ দূর করার চেষ্টা করবো। পরিপূর্ণভাবে ইভিএম ব্যবহার করবো।

মানবকণ্ঠ/এএএম