ঘাম কমানোর উপায়

শরীরকে ঠাণ্ডা রাখার পাশাপাশি ঘাম শরীরের রেচন প্রক্রিয়ার জন্য খুবই জরুরি। তবে গরমে কমবেশি সবাই ঘামের সমস্যায় পড়ি। বিশেষজ্ঞরা বলেন, ঘামের কারণে শরীরে র‌্যাশ, তীব্র দুর্গন্ধ, সংক্রমণ ইত্যাদি সমস্যা হয়। তবে কয়েকটি সহজ উপায়ে গরমের সময়ে এই ঘাম দূর করা সম্ভব। ঢিলেঢালা পোশাক পরলে শরীরে বাতাস লাগে। ফলে শরীর ঘামানোর আশঙ্কা অনেকটা কম থাকে।

ঘামের সমস্যা দূর করতে পারে সুতি পোশাকও। গরমের সময় শরীরে সামঞ্জস্য বজায় রাখে এ পোশাক। সুতি পোশাক পরলে শরীরে সহজে বাতাস প্রবেশ করতে পারে। ক্রিম বা লোশন ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। এগুলো শরীরে আরো বেশি ঘাম তৈরি করে। লবণ পানিতে গোসল করলে শরীরের রোগ-জীবাণু ধ্বংস হওয়ার পাশাপাশি শরীরে ঘামের পরিমাণ কমে যায়। তাই সম্ভব হলে গোসলের পানিতে লবণ ব্যবহার করুন। ঘরে তৈরি প্যাক ব্যবহার করলে ত্বক ঠাণ্ডা থাকে। এর ফলে মুখ ও শরীর কম ঘামায়।

আইসপ্যাক বা আইসকিউব ব্যবহারেও ভালো ফল পাওয়া যায়। আইসপ্যাক দিয়ে পুরো শরীর ঠাণ্ডা করে নিতে পারেন। বিকল্প হিসেবে একটি আইসকিউব নিয়ে শরীরে ঘষতে পারেন। এতে শরীর ঠাণ্ডা হওয়ার পাশাপাশি ঘাম কম হবে। ফলের জুস খেলে শরীরে পানির ভারসাম্য বজায় থাকে, যা ঘামকে নিয়ন্ত্রণ করে। প্রতিদিন ফলের জুস খাওয়ার অভ্যাস শরীরে ঘামের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। সূত্র: বোল্ডস্কাইডটকম

মানবকণ্ঠ/এসএস