গরুর হাটে ডিসিসির শর্ত উপেক্ষিত

ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৪ দিনের জন্য রাজধানীর কোরবানি পশুর হাটগুলোর অনুমোদন (ইজারা) দেয়া হলেও প্রায় এক সপ্তাহ পূর্বেই বসেছে ঢাকার দুই সিটির অন্তর্ভুক্ত অস্থায়ী পশুর হাট। নির্ধারিত সময়ের আগে হাট বসায় রাজধানীতে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজটের। ফলে নগরবাসীর দুর্ভোগ বেড়েছে আরো। ঢাকা দুই সিটি কর্পোরেশনের (ডিসিসি) একাধিক হাট ঘুরে এসব চিত্র দেখা গেছে।

দুই সিটি কর্পোরেশন থেকে বলা হয়েছে, আইন মেনেই হাটের ইজারা দেয়া হয়েছে। সিটি কর্পোরেশনের ইজারার শর্ত অনুযায়ী, কর্পোরেশন থেকে ইজারা দেয়া হাটগুলোতে আগামী ১৮ আগস্টের আগে পশু বেচাকেনা করা যাবে না। একইসঙ্গে ১৭ আগস্টের (গতকাল) আগে হাট প্রস্তুত করাও যাবে না। তবে কোনো ইজারাদারই এ নিয়ম মানেননি। প্রায় এক সপ্তাহ পূর্বেই বসেছে এসব হাট। মেরাদিয়া হাটের চিত্র: গতকাল মেরাদিয়া হাটে গিয়ে দেখা গেছে, হাটের বিস্তৃতি পশ্চিম নন্দীপাড়ার বালু মাঠে চলে গেছে। পুরো মাঠে বাঁশের খুঁটি ও তাঁবু দিয়ে ঘর তৈরি হচ্ছে। বিদ্যুৎ সংযোগও দেয়া হয়েছে। আরো অন্তত এক সপ্তাহ আগে থেকেই দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ব্যাপারীরা পশু এনে এখানে রেখেছেন। রাস্তায় শ্রমিকরা সারি সারি করে বাঁশের খুঁটি ও তাঁবু স্থাপন করছেন। যার ফলে পথচারীদের দুর্ভোগসহ পড়তে হচ্ছে নানা বিড়ম্বনায়।

মেরাদিয়া হাটের ইজারাদার হাজি মো. শাহ আলম বলেন, ‘সিটি কর্পোরেশন যে সময় দিয়েছে তাতে একটা হাট প্রস্তুত করা সম্ভব নয়। তাছাড়া ব্যবসায়ীরা দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পশু এনে রাখেন। বালুর মাঠে প্রস্তুতি নেয়ায় জনসাধারণের কোনো সমস্যা হবে না। এটা উš§ুক্ত জায়গা। সেজন্য সেখানে প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

ব্রাদার্স ইউনিয়ন সংলগ্ন বালুর মাঠ ও কমলাপুর স্টেডিয়ামের চিত্র: হাট ঘুরে দেখা গেছে, হাটের নির্ধারিত স্থান ছাড়াও পার্শ্ববর্তী এলাকায় পশুর হাট বসানোর জোর প্রস্তুতি চলছে। হাটের প্রধান দুই প্রবেশ গেটে দুটি বড় তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। শ্রমিকরা সারি সারি করে বাঁশের খুঁটি ও তাঁবু স্থাপনের কাজ করছেন। বৃষ্টি থেকে বাঁচতে বিশেষ প্রস্তুতিও নেয়া হয়েছে। এ ছাড়া রাস্তার পাশে সারি সারি বাঁশের খুঁটি বসানো হয়েছে। এতে একসময় হাটের গরুতে রাস্তা দখল হবার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।

হাজারীবাগের চিত্র: রাজধানীর হাজারীবাগে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই (৮ আগস্ট) গরু নিয়ে এসেছেন অনেক ব্যবসায়ী। হাট এখনো জমে না ওঠায় বিক্রি নেই বললেই চলে। তাই গরুগুলোর যত্ন নিতেই এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন ব্যবসায়ীরা।

হাটে ১০ দিন আগে আসার কারণ জানতে চাইলে হাবিব নামে এক বিক্রেতা বলেন, ‘হাটে একটু তাড়াতাড়ি করে আসার কারণ হচ্ছে আর দু’এক দিনের মধ্যে সারাদেশ থেকে পশু আসা শুরু হবে ঢাকায়। তখন রাস্তায় অনেক জ্যাম হয়। আর হাটে আসার পর দেখা যায় পছন্দমতো জায়গা পাওয়া যায় না। তাই আগে এসেছি এবং আগে এসে হাটের একদম ঢোকার জায়গাতেই স্থান পেয়েছি। যার ফলে এ হাটে যারাই আসুক না কেন আগে আমার গরুগুলোই চোখে পড়বে।

শাহজাহানপুরের চিত্র: শাহজাহানপুর রেলওয়ে মৈত্রী মাঠের বাইরের রাস্তায় বেশ কয়েকটি ট্রাকে করে বিক্রির জন্য দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে পশু নিয়ে এসেছেন ব্যবসায়ীরা। তবে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নিয়ম অনুযায়ী ঈদের ৩ দিন আগে ঢাকার হাটগুলোতে পশু বিক্রি হওয়ার কথা। সে হিসেবে আজ শনিবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে পশু বিক্রি শুরু হবে। এ ছাড়া বিক্রির এক সপ্তাহ আগে থেকে হাটে পশু আনা হয়েছে। সময়ের আগেই ট্রাকে করে পশু নিয়ে আশার কারণে জনগণের চলাচলে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে অভিযোগ করে অত্র এলাকার বাসিন্দা রোমান ইসলাম বলেন, ‘হাট ইজারাদাররা নিয়মের তোয়াক্কা না করেই কোরবানির প্রায় এক সপ্তাহ আগেই এখানে পশু প্রবেশ করাচ্ছেন। দিনের যে কোনো সময় ট্রাকে করে আনা হচ্ছে পশু। এতে দেখা দিচ্ছে যানজট।’

শনির আখড়া পশুর হাটের চিত্র: দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে থেকে গরু নিয়ে আসছেন ব্যাপারীরা। নৌপথে মাদারীপুর, ফরিদপুর, মুন্সীগঞ্জ জেলার শিবচর এলাকার ব্যাপারীরা বেশি গরু নিয়ে আসছেন। ব্যাপারীরা বলছেন, ঈদের ৩ দিন আগে মূলত হাট ক্রেতা-বিক্রেতার উপস্থিতিতে জমে উঠবে। গত ৯ আগস্ট থেকে গরু নিয়ে এসেছেন বলে জানান ব্যাপারীরা।

গত ৯ আগস্ট হাট বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। এ ছাড়া হাটের নির্ধারিত স্থান ছাড়াও পার্শ্ববর্তী এলাকায় পশুর হাট বসানোর জোর প্রস্তুতি চলছে। এ ছাড়া রাস্তার পাশে সারি সারি বাঁশের খুঁটি বসানো হয়েছে। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘কোনো ইজারাদার যদি শর্ত ভঙ্গ করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেন, ‘যেসব ইজারাদার শর্ত মানবেন না তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হবে।’

মানবকণ্ঠ/এএএম