গরমে ঘরে ঠাণ্ডা ভাব আনতে

মানবকণ্ঠ ডেস্ক:
বিশেষজ্ঞদের মতে, ঘর সাজাতে তন্তু ও রং নির্বাচন গরমের মধ্যেও ঘরে ঠাণ্ডাভাব আনতে সাহায্য করে।
ঘর সাজানোর উপাদান: ঘরে গ্রীষ্ম উপযোগী উপাদান ব্যবহার করুন। জায়গা বড় দেখাতে ও খোলামেলা ভাব আনতে স্বচ্ছ রং ও পরিষ্কার কোনা বিশিষ্ট উপাদান দিয়ে ঘর সাজান। চাইলে ঘরে সবুজায়নের ব্যবস্থা রাখতে পারেন। এতে ঘরের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাবে না। ভাসমান ফুল বা অন্য ভাসমান যে কোনো কিছুর ব্যবস্থা করুন। ঘর সাজাতে এটা ঘরে ঠাণ্ডাভাব আনতে সাহায্য করবে।
ঠাণ্ডা রাখুন: কন্ডিশনার ছাড়াই ঘর ঠাণ্ডা রাখতে কিছু প্রয়োজনীয় বিষয়ে খেয়াল রাখুন। যেমন-ভারী গালিচা, কম্বল ও অন্যান্য ভারী সামগ্রীর বদলে হালকা, পরিবেশবান্ধব উপাদান ব্যবহার করুন এবং সাদা, হালকা নীল, গোলাপি ও সবুজ রঙের প্রাধান্য দিন। এতে ঘরে ঠাণ্ডাভাব বজায় থাকবে।
যতটা সম্ভব সুতি, লিনেন ও হালকা তন্তু ব্যবহার করুন। গরমে এসব উপাদানে আরাম অনুভূত হয়। কুশন, সাজানোর উপাদান বা পেইন্টিংয়ের ক্ষেত্রে ফুলের নকশার প্রাধান্য দিন অথবা চাইলে ঘরের এক কোণে তাজা ফুল রাখতে পারেন। এটা ঘরে একটা সতেজ এবং উজ্জ্বলভাব আনে।
পেস্ট বর্ণ: ঘরের আসবাবের ক্ষেত্রে পেস্ট ধর্মী রং ঠাণ্ডাভাব আনে। এই রং দেখে চোখেও ঠাণ্ডাভাবে আসে। খাবার টেবিল, চেয়ার, বিন ব্যাগ, সোফা, ওয়্যারড্রোব ও বিছানা ইত্যাদি জায়গায় এই রং ব্যবহার করতে পারেন।
‘ফরেস্ট লুক’ বা বনজ-ভাব: গরমে সতেজ অনুভূতির জন্য এটা সবচেয়ে উপযোগী। আসবাবে গাঢ় কাঠের রং এবং সবুজ-পাতার ছোঁয়া ঘরে সতেজভাব আনে। কাঠের পড়ার টেবিল, টিভি রাখার জায়গা, বিছানার পাশে অথবা খাবার টেবিলের ওপরে চাইলে প্রাকৃতিক বা কৃত্রিম গাছের ব্যবস্থা করতে পারেন। আরো গোছানোভাব আনতে ওয়্যারড্রোবের পাশে বা বাথরুমে একই ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেন।
ধাতব ও কাঁচের উপাদান: ঘর সাজাতে ধাতবের ছোঁয়া রাখুন। ঘরে ধাতবের ব্যবহার বিপুল পরিবর্তন আনে। একবার ভেবে দেখুন গাঢ় উপাদানের ওপর রুপালি নকশা দেখতে কতটা পরিষ্কার ও নির্ঝঞ্ঝাট লাগবে। বিডিনিউজটোয়েন্টিফোরডটকম।