খুলনায় বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২

খুলনায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ২ ‘সন্ত্রাসী’ নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে পুলিশ। সোমবার ভোর রাতে নগরীর রেলওয়ে প্রভাতী স্কুলের পিছনে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে দেশি তৈরি পাইপগান, গুলি, চাপাতি, ছোরা ও রামদা উদ্ধার করা হয় বলে জানান খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের (কেএমপি) মুখপাত্র এডিসি মনিরা সুলতানা। অন্যদিকে নগরীর সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশের অভিযানে নূরনগর এলাকায় ইয়াসিন আরাফাত নামে অপর এক সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ আবস্থায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিহতরা হলেন- বাবু ওরফে গুড্ডু বাবু (৩৫) ও মো. আল মাহমুদ (২৪)।

খুলনা থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, এর আগে গ্রেফতার করা সন্ত্রাসী গুড্ডু বাবুকে নিয়ে তার সহযোগীদের গ্রেফতার এবং অস্ত্র উদ্ধারের জন্য ভোর রাতে রেলওয়ে এলাকার প্রভাতী স্কুলের পেছনে অভিযানে যায় পুলিশ। সেখানে অবস্থানরত সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি চালায়। এ সময় আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। গুলি বিনিময়কালে গুড্ডু বাবু ও তার সহযোগী আল মাহমুদ গুলিবিদ্ধ হয়। তাদেরকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। নিহতদের বিরুদ্ধে যুবলীগ কর্মী সাইদুর হত্যা মামলাসহ ৪টি মামলা রয়েছে।

তিনি আরো জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশি তৈরি পাইপগান, ৩ রাউন্ড গুলি, ২টি চাপাতি, একটি ছোরা ও ২টি রামদা উদ্ধার করে পুলিশ।

এদিকে সোনাডাঙ্গা থানার ওসি মমতাজুল হক জানান, নগরীর নূরনগর এলাকায় ভোর রাতে পৃথক অভিযানে গিয়ে পুলিশের সাথে সন্ত্রাসীদের গুলি বিনিময় হয়। এরপর পুলিশ অস্ত্র ও গুলিসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় সন্ত্রাসী ইয়াসিন আরাফাতকে গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে হত্যা ও অপহরণসহ ৬টি মামলা রয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এএইচ/বিএএফ