খালেদার রায়ে সরকারের হস্তক্ষেপ ‘একশ পার্সেন্ট’: কর্নেল অলি

কর্নেল অলি

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায়ে সরকারের হস্তক্ষেপ ‘একশ পারেসেন্ট’ এমন মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) ড. অলি আহমদ বীর বিক্রম।

তিনি বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া ও দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের অ্যাকাউন্টে এই টাকা ছিল না। তারা অন্যকোনো জায়গায় এটা টাকা জমাও রাখেননি। তাদের এই মামলায় কোনো সম্পুক্ততা নেই। পদ্ধতিগত ভুল থাকতে পারে। সুতরাং এখানে সরকারের হস্তক্ষেপ ‘একশ পার্সেন্ট’।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে নতুন হলের এক আলোচনায় অংশ নিয়ে এ সব কথা বলেন অলি আহমদ। বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি এর আয়োজন করে গণতান্ত্রিক ছাত্রদল।

অলি আহমদ বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে বারবার বলা হচ্ছে, এখানে সরকারের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। যদি না থাকে তাহলে নাজিম উদ্দিন রোডের পরিত্যাক্ত নির্জন জেলখানা কেন খালেদা জিয়ার জন্য ৫ দিন আগে থেকেই ঘসামাঝা করে প্রস্তুত করা হয়েছিল।

তিনি বলেন, সোমবার সানাউল্লা সাহেব বলছেন, রায় দেয়া হয়েছে আগে রায় লেখা হয়েছে পড়ে। কারণ ১০ দিনের মধ্যে এত লম্বা রায় লিখা সম্ভব নয়। সরকার বিচার বিভাগ নিয়ন্ত্রন করছে। প্রধান বিচারপতিকে যেভাবে বেইজ্জত করে দেশ থেকে বিতারিত করেছে। এরপর সবাই সরকারের হাতে জিম্মি।

তিনি আরো বলেন, আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু করতে অবশ্যই বেগম জিয়াকে মাঠে থাকতে হবে। এই জন্য খালেদা জিয়ার অভিলম্বে মুক্তির দাবি চাই।

সংগঠনের সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মেহেদী হাসান মাহবুব। বক্তব্য দেন- এলডিপের প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল গনি, আবদুল করিম আব্বাসী, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহদাৎ হোসেন সেলিম, এনডিপির মহাসচিব মুন্জুর হোসেন ইসা প্রমুখ।

মানবকণ্ঠ/এসইউএম/এসএস