খালেদার মামলার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রস্তুত, বিকেলেই প্রকাশ

খালেদা জিয়া

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার ১১৬৮ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রস্তুত হয়েছে। সোমবার বিকেলে সত্যায়িত অনুলিপি প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালত।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার সাজা ঘোষণার পর পূর্ণাঙ্গ রায়ের কপি পাওয়া নিয়ে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা অভিযোগ করে আসছিলেন। তাদের অভিযোগ, সরকারের হস্তক্ষেপের কারণে রায়ের কপি পাচ্ছেন না তারা।

রোববার রায়ের কপি পেতে খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া আদালতে আবেদন করেন। আবেদনের শুনানি শেষে ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান পূর্ণাঙ্গ কপি প্রকাশের জন্য আজকের দিন ধার্য করেন।

আদালত সূত্র জানিয়েছে, সোমবার বিকেলে খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের হাতে রায়ের কপি হস্তান্তর করবেন। ৮ ফেব্রুয়ারি ঘোষণার সময় বলা হয়েছিল রায় ৬৩২ পৃষ্ঠার। তবে সত্যায়িত কপির পৃষ্ঠা সংখ্যা ১১৬৮ বলে জানা গেছে। প্রতি পৃষ্ঠায় বিচারকের সীল ও স্বাক্ষর থাকবে এবং চলছে তার কাজ। দুপুরের পর আইনজীবীদের হাতে তা দেয়া হবে।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি বিশেষ জজ আদালত জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ডাদেশ এবং দুই কোটি ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় পাঁচ বছরের সাজাপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ১২ দিন ধরে রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন। রায়ের সার্টিফায়েড কপি না মেলায় জামিন আবেদন করতে পারেননি তিনি। অবশেষে হাইকোর্টে জামিন আবেদনের পথ সুগম হচ্ছে আজ।

মানবকণ্ঠ/এসএস