ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর নিচ্ছে এক্সিলেন্স বাংলাদেশ

ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর নিচ্ছে এক্সিলেন্স বাংলাদেশ

চাকরি, সমস্যা, সমাধান যাত্রা এই তিনটিকে এক জায়গায় এনে নতুন কিছু করার লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক সংগঠন এক্সিলেন্স বাংলাদেশ। এক্সিলেন্স বাংলাদেশ দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে একজন করে ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। সংগঠনটি জানিয়েছে, ২৭ জুলাই থেকে ১০ আগস্ট পর্যন্ত চলবে আবেদন প্রক্রিয়া। এরপর ১৫ আগস্টের মধ্যে অ্যাম্বাসেডর রিসিপশন প্রোগ্রাম করবে তারা।

সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাতাদের একজন সানজিদা সারোয়ার জানান, আমাদের দেশে আমরা যেখানে পড়াশোনা করি, তারা খুব কম সময় আমার সেক্টরের সেরা মানুষগুলোর সঙ্গে পরিচয় করায়। যার ফলে আমরা ফার্মেসিতে পড়েও ব্যাংকার হতে চাই, বিবিএ পড়ে বিসিএসের পেছনেই ছুটি।

আমরা যদি আগেই জানতে পারি, আমার সেক্টরের সেরা মানুষগুলোর মুখে আমার সেক্টরের সর্বশেষ অবস্থা, ক্যারিয়ার, সমস্যা, সমাধান সম্পর্কে তাহলে এত বেকারত্ব থাকতো না।

এজন্য আমরা উদ্যোগ নিয়েছি ১৪টি ডিপার্টমেন্টের পড়াশোনার সঙ্গে মিল রেখে সেশন করবো। যেমন অক্টোবরের ১৩ তারিখে ক্যারিয়ার ইন সিভিল এরকম ১৪টি প্রোগ্রাম হবে।

স্পিকার থাকবেন ওই ইন্ড্রাস্টির আটজন এইচআর, সিএফও এবং সিইও। যাতে করে একটা পজিটিভ বাংলাদেশ পাই আমরা।

ক্যারিয়ার, চাকরি আর সমস্যার সমাধান যাত্রায় ২০২০ পর্যন্ত এমন প্রোগ্রাম করবেন বলে জানিয়েছেন এক্সিলেন্স টিমের আরেক প্রতিষ্ঠাতা বেনজির আবরার।

তিনি বলেন, আমরা ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর নিচ্ছি তাদের ভবিষ্যতের জন্য প্রস্তুত করতে। প্রতিটি ক্যাম্পাসের একজন করে নেবো আমরা, তাদের জন্য আমাদের ১৪টি প্রোগ্রাম উন্মুক্ত থাকবে।

তাদের আমরা আইডি কার্ড দেবো, তাদের সঙ্গে কর্পোরেট বসদের সম্পর্ক স্থাপন, ইন্টার্নশিপ সব বিষয়ে সহযোগিতা করে তাকে মানবসম্পদে রূপান্তরের চিন্তা রয়েছে আমাদের।

আবেদন করার শেষ সময় ১০ আগস্ট। আবেদন করতে সিভি পাঠাতে হবে [email protected] অথবা [email protected] এই ঠিকানায়।

মানবকণ্ঠ/এসএস