কোরীয় নাগরিক হত্যায় পরিচ্ছন্নতাকর্মীর যাবজ্জীবন

দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিক রো জং সিং হত্যার দায়ে একমাত্র আসামি পরিচ্ছন্নতাকর্মী মানিক সরকারকে যাবজ্জীবন দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার ঢাকার ৪নং দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবদুর রহমান সরদার এ রায় ঘোষণা করেন। যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি আসামিকে দশ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরো এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন ট্রাইব্যুনাল।
রায় ঘোষণার আগে মামলার একমাত্র আসামি মানিক সরকারকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। রায় ঘোষণার পর তাকে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।
রায়ে বলা হয়েছে, নিহত নারীর মেয়ের খারাপ আচরণ, আসামিকে মারধরসহ তার বেতন-ভাতা ও অন্য সুযোগ-সুবিধা নিয়ে বিরোধের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। বেতন নিয়ে নিহত নারীর সঙ্গে আসামির একাধিকবার কথা-কাটাকাটি হয়।
পরে আদালতের সরকারি কৌঁসুলি মাহফুজুর রহমান লিখন বলেন, ২০১১ সালের ৯ নভেম্বর কোরীয় নাগরিক রো জং সিয়ংকে (৬৯) ধারালো চাকু দিয়ে আঘাত করা হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কোরিয়ায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ওই বছরের ১৭ নভেম্বর তিনি মারা যান। এ ঘটনায় ওই দিন নিহত নারীর স্বামী পার্ক জ্যাং সিয়ং বাদী হয়ে গুলশান থানায় একটি মামলা করেন। তিনি ৪৫ বছর ধরে গুলশানে রেস্তোরাঁ পরিচালনা করে আসছেন। ঘটনা তদন্ত শেষে ২০১২ সালের ৩০ এপ্রিল আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয়া হয়। ওই বছরের জুলাই মাসে আসামির বিরুদ্ধে বিচার শুরু হয়।
গ্রেফতারের পর মামলার আসামি মানিক সরকার হত্যার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। ২০১২ সালের ৩০ এপ্রিল গুলশান থানার পুলিশ পরিদর্শক নুরে আলম মানিককে একমাত্র আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলায় বিভিন্ন সময়ে ১৫ জন সাক্ষী সাক্ষ্য প্রদান করেন।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.