কেরানীগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

ঢাকার কেরানীগঞ্জে আবু সিদ্দিক (৫৬) নামে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক এক সাংগঠনিক সম্পাদককে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে।

শনিবার বেলা সাড়ে ৩ টার দিকে কেরানীগঞ্জের ঘাটারচর সড়কের মধু সিটি আবাসন প্রকল্পের নতুন ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকেলে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে ঘাটারচর দিয়ে যাওয়ার সময় মধু সিটি আবাসন প্রকল্পের লোকজনের সঙ্গে আবু সিদ্দিকের ছেলে শিফাতের বিবাদ হয়। এ সময় মধু সিটির লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে শিফাতের গাড়ি ভাঙচুর করেন। প্রতিবাদ জানাতে আবু সিদ্দিক তার লোকজন নিয়ে শনিববার বিকেলে মধু সিটির সামনে এলে দুপক্ষের লোকজনের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে মধু সিটির লোকজন ধাওয়া করে আবু সিদ্দিকের লোকজনকে তাড়িয়ে দেন। পরে আবু সিদ্দিক তার লোকজন নিয়ে হামলা চালানোর চেষ্টা করলে মধু সিটির লোকজন তাকে ধরে মধু সিটির নতুন ভবনে নিয়ে যান। সেখানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাকে রক্তাক্ত জখম করেন। পরে আবু সিদ্দিককে উদ্ধার করে আটিবাজার সেন্ট্রাল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আবু সিদ্দিকের পরিবারের দাবি, পূর্বপরিকল্পিতভাবে আবু সিদ্দিককে তার বাসার সামনে থেকে ধরে নিয়ে মধু সিটির লোকজন এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত করেন।

মধু সিটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সলিমুল্লাহ সলিম অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আবু সিদ্দিক তাদের কাছে চাঁদা দাবি করছিলেন। শনিবার দুপুরে হাউজিংয়ের নতুন ভবনে মিলাদ ছিল। দাবি করা চাঁদা না দেয়ায় সুযোগ বুঝে লোকজন নিয়ে আবু সিদ্দিক তাদের ওপর হামলা করতে আসেন। এ সময় মধু সিটির লোকজন প্রতিরোধ করলে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় কে বা কারা আবু সিদ্দিককে কুপিয়ে আহত করেছেন, তা তিনি জানেন না বলে দাবি করেন।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, পূর্ব শত্রুতার জেরে আবু সিদ্দিককে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে জমিজমার মালিকানা নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে ঘটনাটি ঘটতে পারে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মানবকণ্ঠ/এএম