কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠনের পরিকল্পনা আওয়ামী লীগের

কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠনের পরিকল্পনা আওয়ামী লীগের

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠনে গুরুত্ব দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। সারাদেশের প্রতিটি কেন্দ্রকে ঘিরে কমিটি গঠন করার পরিকল্পনা নিয়েছে ক্ষমতাসীন দলটি। এরই মধ্যে কয়েকটি জেলার প্রতিটি গ্রামেই কমিটি গঠনের কাজ শেষ করেছে তারা। স্থানীয়দের মতামতেই গঠন হচ্ছে কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের দিকনির্দেশনার অপেক্ষায় রয়েছে কেন্দ্রভিত্তিক কমিটির নেতারা। ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীককে বিজয়ী করতে স্থানীয় নেতারা আনন্দ উল্লাসের মধ্য দিয়েই অংশ নিচ্ছেন আসন্ন নির্বাচনের কার্যকলাপে- এমনটাই মানবকণ্ঠকে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতারা।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, নবম ও দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠন করছে। নির্বাচনী কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠনে স্থানীয় নেতাদের মতামতকে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে। প্রতিটি কেন্দ্র নিয়ন্ত্রণের জন্য ২০ থেকে ৩০ জন কর্মীকে দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে। ইউনিয়ন, থানা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা নির্বাচনী কেন্দ্র কমিটির দায়িত্বে থাকবেন। নৌকার মনোনীত প্রার্থী একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করবেন আসনভিত্তিক।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান মানবকণ্ঠকে বলেন, আমার এলাকার সর্বস্তরের জনগণ নৌকাকে বিজয়ী করবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকার মধ্যে যেসব নেতাকে নৌকার টিকিট দিয়েছেন, তারা সবাই চমৎকার প্রার্থী। নৌকাকে বিজয়ী করে নিয়ে আসতে পারবেন। নির্বাচন কেন্দ্র করে আমরা কেন্দ্রভিত্তিক কমিটি গঠন করেছি। একজন প্রভাবশালী নেতাকে দিয়েই এই কমিটি পরিচালনা করা হবে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কেউ যদি কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করে তাহলে আমরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিহত করব।

আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন মানবকণ্ঠকে বলেন, আমাদের দলের পক্ষে থেকে স্থানীয় পর্যায়ে নির্বাচনী কেন্দ্র কমিটি করার নিদের্শনা অনেক আগেই দেয়া হয়েছে। আমাদের স্থানীয় নেতারা প্রার্থীর সঙ্গে সমন্বয় করে তারা কেন্দ্র কমিটি গঠন করার কাজ দ্রুতগতিতে চালিয়ে যাচ্ছে। আমি মনে করি, কেন্দ্রীয় কমিটির কাজ সম্পূর্ণ করে নির্বাচনী কাজে ঝাঁপিয়ে পড়বে।

এ ছাড়া আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক লীগ রাজধানী ঢাকার ২০টি আসনকে ঘিরে হাতে নিয়েছে নির্বাচনী পরিকল্পনা। রাজধানীর প্রতিটি ঘরে গিয়ে ভোট চাওয়া থেকে শুরু করে তাদের নির্বাচনী ক্যাম্পিংয়েই রয়েছে কয়েকটি ধাপ। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, ‘৫ সদস্য বিশিষ্ট ভোট কেন্দ্র কমিটি’ গঠন। এই কমিটির সদস্যদের নাম, মোবাইল নম্বর ও ছবি দিয়ে করা হবে পরিচয়পত্র। ভোট কেন্দ্র কমিটিকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য করা হবে আসন ভিত্তিক কমিটি। সেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্র থেকে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেবে আসন ভিত্তিক কমিটিকে।

বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা মোহাম্মদ আবু কাওসার মানবকণ্ঠকে বলেন, আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সেচ্ছাসেবক লীগ এখন থেকেই মাঠে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঢাকাসহ সারাদেশের নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করতে কাজ করছে সেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীরা। ঘর টু ঘর-ওয়ার্ড টু ওয়ার্ডে গিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে সক্রিয় রয়েছে আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগ। এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কয়েকটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এসব কমিটি কেন্দ্রীয় নেতাদের দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

দলের সূত্রে আরো জানা যায়, ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের এবারের নির্বাচনের প্রধান টার্গেট তরুণ ভোটার। দেশের তরুণ ভোটারদের আকৃষ্ট করতে সরাসরি প্রচার কাজটি তত্ত্বাবধান করছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচার চালানোর জন্য বিভিন্ন কনটেন্ট আওয়ামী লীগের গবেষণা সেল ‘সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)’-এর পক্ষ থেকে সরবরাহ করা হবে। ইতিমধ্যে সেটি শুরু করেছে সিআরআই।

জানা যায়, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির বেশিরভাগ সদস্যই বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সঙ্গে যুক্ত। বেশ কয়েক মন্ত্রী এবং দলীয় এমপি সক্রিয় ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক মাধ্যমে প্রতিদিন নিজেদের বিভিন্ন কার্মকাণ্ড শেয়ার করার পাশাপাশি তারা নিয়মিত সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট দিচ্ছেন ‘সরকারের উন্নয়ন ও বিরোধীপক্ষের অপকর্মের’ তথ্য নিয়ে। নির্বাচনী প্রচারে দেশের বিভিন্ন অঙ্গনের তারকাদের যুক্ত করার বিষয়টি আগেই ঘোষণা দিয়েছিল আওয়ামী লীগ। এবার তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সক্রিয় করছে দলটি। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রচারণার সঙ্গে যুক্ত এসব জনপ্রিয় ব্যক্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখার পক্ষে, জঙ্গিমুক্ত বাংলাদেশ গঠনে, বিএনপির অগ্নি-সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লাইভ ভিডিও, পোস্ট ইত্যাদির মাধ্যমে নৌকার পক্ষে ভোট চাইছেন।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.