কিশোরী ধর্ষণ: ইউপি সদস্যসহ গ্রেফতার ৫

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় স্থানীয় এক ইউপি সদস্যসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার গভীর রাতে তাদের গ্রেফতার করা হয়। সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- বগাদানা ইউনিয়ন পরিষদের নয় নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মাঈন উদ্দিন ও ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাঈন উদ্দিন, ওই ওয়ার্ডের অটোরিকশা চালক আলমগীর হোসেন (২৩), জয়নাল আবেদীন (২০), নজরুল ইসলাম (২১) ও আনোয়ার হোসেন (২২)।

জানা যায়, গত সোমবার বিকেলে সোনাগাজীর চরসাহা ভিকারী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরদিন রাতে ১৭ বছর বয়সী ওই মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার বিবরণে বলা হয়, চরসাহা ভিকারী গ্রামের আলমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে সোমবার বিকেলে হতদরিদ্রদের জন্য চাল কিনে বাড়ি ফিরছিল মেয়েটি। পথে জয়নাল, নজরুল ও আনোয়ার তাকে পাশের একটি জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে মেয়েটি অচেতন হয়ে পড়লে বাড়িতে পাঠানোর জন্য মেয়েটিকে একটি অটোরিকশায় তুলে পালিয়ে যায় তারা। পরে ওই অটোরিকশা চালক মেয়েটিকে ফের ধর্ষণ করার চেষ্টা করে। এসময় মেয়েটির জ্ঞান ফিরে আসলে সে দ্রুত পালিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ওসি মোয়াজ্জেম বলেন, মেয়েটি বাড়ি ফিরে ঘটনাটি পবিবারকে জানালে তার বাবা ইউপি সদস্য মাঈনের কাছে অভিযোগ করেন। পরদিন জয়নাল, নজরুল ও আনোয়ারকে গ্রাম্য সালিশের মাধ্যমে নাকে খত দিয়ে মাঈন তাদের ছেড়ে দেন। পরে মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে পাঁচজনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত পরিচয় আরো কয়েকজনকে আসামি করে এ মামলা দায়ের করা হয়।

মানবকণ্ঠ/এএএম