কলেজ ছাত্র খুন, ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ৪

কলেজ ছাত্র খুন, ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক ৪
বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে কলেজ ছাত্র নাইম ইসলামকে গলা কেটে হত্যা পর মৃতদেহ আগুনে পুড়িয়ে বিকৃত করার ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় জড়িত সন্দেহে সারিয়াকান্দি পৌর শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম অনন্ত শ্রাবণ বিশুকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে তাকে আটক করা হয়। এর আগে এই নির্মম হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে নিহত নাইমের ৩ সহপাঠীকে পুলিশ আটক করে। প্রেমঘটিত ঘটনায় এই হত্যাকাণ্ড হয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে।

আটককৃতরা হলো-গাবতলীর গুলারতাইড় গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে মনির (২০), ধুনটের চিকাশী গ্রামের লিয়াকতের ছেলে অন্তর (২০) এবং সারিয়াকান্দির সোনাপুর গ্রামের শাহাদত মেম্বারের ছেলে বাবু (২০)। সাব্বির নামের তাদের আরেক বন্ধু এই ঘটনায় জড়িত বলে পুলিশ দাবি করেছে। এরা সবাই বগুড়া শহরের বেসরকারি পলিটেকনিক ‘বিট’ এর ছাত্র বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের পর শুক্রবার দুপুরে পুলিশ ছাত্রলীগ নেতা বিশুকে আটক করে।

সহকারি পুলিশ সুপার (সার্কেল) তাপস কুমার পাল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানিয়েছেন হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এখনো কোনো মামলা দায়ের হয়নি। তবে, মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

উল্লেখ্য, বগুড়া শহরের বেসরকারি পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট বিট এর টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র নাইম ইসলামকে বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক ১০টার দিকে তার চার সহপাঠী ফোন করে ডেকে নেয়। এরপর তার আর কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। শুক্রবার ভোরে সারিয়াকান্দি শহরে কালী মন্দিরের দক্ষিণ পাশ থেকে পুলিশ বিকৃত অবস্থায় মৃত দেহ উদ্ধার করে। কিন্তু মৃত দেহটি আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ায় চেনা যাচ্ছিল না। নিহত নাইমের মা ছেলের পায়ের বিশেষ চিহ্ন দেখে লাশ শনাক্ত করেন।

প্রেমঘটিত একটি ঘটনার জের ধরে এই হত্যা কান্ড ঘটেছে বলে পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে ।

মানবকণ্ঠ/এসএ