কন্ডিশনার ব্যবহারে কি ভুল করছেন!

প্রতিবার শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার ব্যবহার করেও যদি কাক্সিক্ষত ফল না পেয়ে থাকেন তাহলে ধরে নিতে হবে কন্ডিশনার ব্যবহারে কিছু ভুল করছেন। সাজসজ্জাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদনে সঠিকভাবে কন্ডিশনার ব্যবহারের উপায় তুলে ধরা হয়।
সঠিক অংশে ব্যবহার: শুধু চুলে কন্ডিশনার ছড়িয়ে দিলেই চলবে না, সঠিক অংশে কন্ডিশনার লাগানোও দরকার। কন্ডিশনার লাগাতে হয় মূলত চুলের গোড়ার অংশে। কখনো মাথার তালুতে মালিশ করা উচিত নয়।
প্রতিদিন ব্যবহার না করা: মাঝেমধ্যে কন্ডিশনার বাদ পড়তেই পারে। তবে প্রায়ই যদি এই ভুল হয় বা একদমই ব্যবহার না করলে এই অভ্যাস বদলাতে হবে। কন্ডিশনার চুল ময়েশ্চারাইজ করে নরম ও ঝলমলে রাখে। এ ছাড়া কন্ডিশনার ব্যবহারের ফলে চুলে জট বাধার সমস্যাও কমবে।
অতিরিক্ত কন্ডিশনার ব্যবহার: পরিমাণে বেশি ব্যবহার করলেই তা কার্যকর হবে এমন কোনো কথা নেই। প্রয়োজনের অতিরিক্ত কন্ডিশনার ব্যবহারের ফলে তা চুল ভারি করে ফেলে এবং ভালোভাবে ধুয়ে ফেলাও বেশ দুষ্কর হয়। চুলের দৈর্ঘ্য অনুসারে কন্ডিশনার নিয়ে চুলের মাঝামাঝি থেকে নিচের অংশে লাগিয়ে নিন। ভালোভাবে ব্যবহার করুন যেন প্রতিটি চুলে কন্ডিশনার লাগে।
অপেক্ষা না করা: কন্ডিশনার লাগিয়েই ধুয়ে ফেললে কোনো কাজই হবে না, কাজ করার জন্য কিছুটা সময় দিতে হবে। চুলে লাগানোর পর কমপক্ষে তিন মিনিট অপেক্ষা করুন। এতে কন্ডিশনারের উপাদান চুলের গভীরে ঢুকে ময়েশ্চারাইজ করতে সাহায্য করবে। চুলে কন্ডিশনার লাগিয়ে বাকি কাজ শেষ করে সব শেষে চুল ধুয়ে ফেলুন এতে ভালো ফল পাওয়া যাবে। সূত্র: ইন্টারনেট

মানবকণ্ঠ/আরএস