ওয়ালটন এসি কিনে লাখ টাকা পেলেন হবিগঞ্জের গোলাম রহমান

ওয়ালটন এসি কিনে লাখ টাকা পেলেন হবিগঞ্জের গোলাম রহমানওয়ালটন এসি কিনে এবার এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পেয়েছেন হবিগঞ্জের গোলাম রহমান। ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-ফোর এর আওতায় এক লাখ টাকা পান তিনি।

গোলাম রহমানের বাড়ি শায়েস্তাগঞ্জের বাঘাইছোড়া গ্রামে। বাবা-মা গ্রামের বাড়ি থাকলেও বড় ভাইয়ের সঙ্গে তিনি হবিগঞ্জ শহরে থাকেন। সেখানে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করছেন তিনি।

হবিগঞ্জে ওয়ালটন পণ্যের এক্সক্লুসিভ ডিস্ট্রিবিউটর টি আর ইলেক্ট্রো মার্ট-এর ম্যানেজার চিন্ময় অংশু জানান, ওই শোরুম থেকে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ১ লাখ ৯২ হাজার টাকায় ৬টি ওয়ালটন এসি কিনে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-ফোর এ এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পেয়েছেন পান গোলাম রহমান। গত শুক্রবার (২২ মার্চ) লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচারে কেনা পণ্য তার হাতে তুলে দেয়া হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন টি আর ইলেক্ট্রো মার্টের চেয়ারম্যান রোটারিয়ান মোদারিছ আলী টিনু, ওয়ালটনের ফার্স্ট সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মো. আসাদুজ্জামানসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

ভাগ্যবান ক্রেতা গোলাম রহমান বলেন, আমি একটি পাওয়ার প্ল্যান্ট অফিসে কর্মরত আছি। অফিসের জন্য এসি কিনে এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পেয়েছি। যা দিয়ে অনেকগুলো পণ্য নিয়েছি। এর আগে এত বড় পুরস্কার জীবনে কখনো পাইনি। নিজেকে খুব সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে।

তিনি আরো জানান, নতুন অফিস আট মাস আগে যাত্রা শুরু করেছে। পাঁচ মাস হয় তিনি ওই অফিসে যোগ দিয়েছেন। অফিসের জন্য গরমের শুরুতেই এসির প্রয়োজন হয়। সাশ্রয়ী দামে সেরা মানের ওয়ালটন এসি কেনার জন্য অফিসের পক্ষ থেকে তিনি ওয়ালটন শোরুমে যান। আর ওয়ালটন এসি কিনেই হয়ে গেলেন লাখ টাকা বিজয়ী। অফিসের জন্য ওয়ালটন এসি কিনে লাখ টাকা পেলেও অফিস কর্তৃপক্ষ পুরো পুরস্কার গোলাম রহমানকে হস্তান্তর করে।

ক্রেতাদের জন্য এসিতে এমন অফার রাখায় ওয়ালটন কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান গোলাম রহমান। পাশাপাশি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নিজ প্রতিষ্ঠানের প্রতি।

এক লাখ টাকা দিয়ে তিনি ১টি ফ্রিজ, ২টি এলইডি টেলিভিশন, মোবাইল ফোন, ব্লেন্ডার, রাইস কুকারসহ বেশ কিছু গৃহস্থালি পণ্য নিয়েছেন। এর মধ্যে ১টি টিভি তিনি তার বড় ভাইকে উপহার দিয়েছেন।

ওয়ালটন সূত্রে জানা গেছে গত ৯ জানুয়ারি থেকে সারা দেশব্যাপী ডিজিটাল ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এবার চলছে এই আয়োজনের ৪র্থ পর্ব বা সিজন ফোর। এর আওতায় ওয়ালটন পণ্য কিনে রেজিস্টেশন করলেই ক্রেতারা পাচ্ছেন সর্বোচ্চ এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। আছে মোটরসাইকেল, এয়ার কন্ডিশনার, ল্যাপটপ, ফ্রিজ, এলইডি টিভি, ওভেনসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। এসব না মিললেও রয়েছে নিশ্চিত ক্যাশব্যাক। এ সুবিধা থাকবে পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত।

এছাড়াও, এয়ার কন্ডিশনার বা এসিতে বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে ওয়ালটন। ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে ওয়ালটন এসি কিনে ক্রেতারা পাচ্ছেন পুরো এক বছরের বিদ্যুৎ বিলের টাকা ফ্রি পাওয়ার সুযোগ। ইতোমধ্যেই ১৮ জন ক্রেতা ওয়ালটন এসি কিনে এক বছরের বিদ্যুৎ বিল ফ্রি পেয়েছেন।
এদিকে ‘এসি এক্সচেঞ্জ’ অফারের আওতায় ওয়ালটন প্লাজা ও শোরুমে যে কোনো ব্র্যান্ডের ব্যবহৃত পুরাতন এসি জমা দিয়ে ক্রেতারা ওয়ালটনের নতুন এসি কিনতে পারছেন। এক্ষেত্রে পুরনো এসি জমা দিলে গ্রাহক তার পছন্দকৃত নতুন ওয়ালটন এসির মূল্য থেকে ২৫ শতাংশ ছাড় পাচ্ছেন।

মানবকণ্ঠ/এসএস