ঐতিহাসিক বৈঠক করলেন কিম ও ট্রাম্প

ঐতিহাসিক বৈঠক করলেন কিম ও ট্রাম্পঐতিহাসিক বৈঠক করলেন কিম ও ট্রাম্পসিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপের বিলাসবহুল ক্যাপেলা হোটেলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মধ্যে ঐতিহাসিক শীর্ষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। দুই দেশের নেতাদের মধ্যে এই প্রথম এ ধরনের বৈঠক হলো। বৈঠকটি শুরু হয় স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ৯টায়। বৈঠকের শুরুতে তারা করমর্দন করেন যা আমেরিকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলো সরাসরি সম্প্রচার করে।

এরপর দু নেতা একান্ত বৈঠকে বসেন। সেখানে শুধুমাত্র দু দেশের দু জন অনুবাদক ছিলেন। বৈঠক স্থায়ী হয়েছে প্রায় এক ঘণ্টা মতো। বৈঠক শেষে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও কিম জং উন গণধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন। ট্রাম্প বলেছেন, খুবই ভালো বৈঠক হয়েছে এবং আমাদের দুইজনের মধ্যে দারুণ সম্পর্ক তৈরি হতে পারে এতে কোনো সন্দেহ নেই।

কিম বলেছেন, এ বৈঠকে বসা খুব সহজ ব্যাপার ছিল না। পুরনো কুসংস্কার এবং অভ্যাসগুলো এ ক্ষেত্রে বাধা হিসেবে কাজ করে এসেছে কিন্তু আমরা সেগুলোকে আমরা উতরে যেতে পেরেছি।

এক সাংবাদিকের তথ্য মতে- কিম জং উন বলেন, বিশ্বের অনেকেই মনে করতে পারেন যে, এটা ছিল সায়েন্স ফিকশন মুভির কোনো কোনো অলীক ঘটনা।

হোয়াইট হাউজ সূত্র জানিয়েছে, প্রেসিডন্টে ট্রাম্প মঙ্গলবার রাতে সিঙ্গাপুর ছাড়বেন। হোয়াইট হাউজ আরো জানিয়েছেন, পরমাণু বিষয়ক আলোচনা ধারণার চেয়েও দ্রুত গতিতে এগুচ্ছে।

প্রেসিডেন্টে ট্রাম্পের আমেরিকা ফেরার কথা ছিল বুধবার কিন্তু উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে বৈঠকের পর তিনি এখন দ্রুত সেখান থেকে দেশে ফিরতে চান। এর আগে, গত সপ্তাহে ট্রাম্প বলেছিলেন, বৈঠক দুই থেকে তিনদিনেও গড়াতে পারে। বৈঠকে কী ঘটছে তার ওপর সবকিছু নির্ভর করবে বলেও তিনি মন্তব্য করেছিলেন।

মানবকণ্ঠ/এসএস